মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে বৌরানী নামক জুয়া খেলার সামগ্রীসহ চার জুয়াড়ী আটক

মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের সহকারি পুলিশ কমিশনার আহমেদ পেয়ার এর নেতৃত্বে পুলিশ পরিদর্শক সঞ্জিত চন্দ্র দাস ও এসআই/মোঃ জাহাঙ্গীর আলমসহ ডিবি পুলিশের একটি টিম গত-২২/০৩/২০১৮খ্রি. তারিখ সন্ধ্যা ০৬.৩০ ঘটিকায় গোপন তথ্যের ভিত্তিতে কোতয়ালী মডেল থানাধীন চালিবন্দর শ্মশানঘাটস্থ পাকা রাস্তার পাশে সোনাফর মিয়ার টিনের খোলা ছাপড়া ঘরে অভিযান পরিচালনা করে ১। মোঃ বাবুল মিয়া (৪৫), পিতা- মৃত টুনু মিয়া, সাং- ভোতাইল, থানা- মুরাদনগর, জেলা- কুমিল্লা, বর্তমানে- তাহির মিয়ার কলোনী, সোবহানীঘাট আ/এ, থানা- কোতয়ালী, এসএমপি, সিলেট, ২। শামীম উদ্দিন (৩৪), পিতা- মৃত ছালেহ আহমেদ, সাং- কুশিঘাট (বোরহান উদ্দিন মাজারের পাশে), থানা- শাহপরাণ (রহঃ), এসএমপি, সিলেট, ৩। মোঃ লিটন মিয়া @ মেসি (৩০), পিতা- মৃত মোহাম্মদ আলী, সাং- শাসন ইলাম পাড়া, থানা- শ্রীমঙ্গল, জেলা- মৌলভীবাজার, বর্তমানে- ছড়ারপার জাহাঙ্গীর মিয়ার কলোনী, থানা- কোতয়ালী, এসএমপি, সিলেট, ৪। রাকিব আহমেদ (২০), পিতা- মোঃ ফারুক মিয়া, সাং- রাজ্জুরা, থানা- শায়েস্তাগঞ্জ, জেলা- হবিগঞ্জ, বর্তমানে- আমির আলী সরদারের কলোনী, থানা- কোতয়ালী, এসএমপি, সিলেট গণকে বৌরানী নামক জুয়া খেলার সামগ্রী ও নগদ টাকাসহ আটক করে। অভিযান পরিচালনা কালে উক্ত জুয়া বোর্ডের মূল হোতা আসলাম @ ঢাকাইয়া আসলাম সহ আরো ২/৩ জন জুয়ারী দৌড়ে পালিয়ে যায়। আটক জুয়ারীরা বর্ণিত স্থানে দীর্ঘদিন যাবত বৌরানী নামক জুয়ার বোর্ড পরিচালনা করে আসছিল মর্মে জানা যায়। এসআই/ মোঃ জাহাঙ্গীর আলম আটক জুয়ারীদের আসামী করে কোতয়ালী মডেল থানায় এজাহার দায়ের করলে তাদের বিরুদ্ধে কোতয়ালী মডেল থানার মামলা নং-৪৫ তারিখ-২২/০৩/২০১৮খ্রি. রুজু করে আসামীদের বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।–বিজ্ঞপ্তি

Sharing is caring!

Loading...
Open