সিলেটে পুলিশের ‘টার্গেটে’ বিএনপি নেতা জামান

সুরমা টাইমস ডেস্ক::            জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া এবং সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে কারা‌দণ্ড প্রদানের প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার সারাদেশের ন্যায় উত্তপ্ত ছিল সিলেট।

এদিন বন্দরবাজার, কোর্টপয়েন্ট, আদালত এলাকায় সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির অনুসারী সংগঠনগুলো। এসময় উভয়পক্ষে অন্তত ২ জন গুলিবিদ্ধসহ ১০ জন আহত হন। এসময় শামীম নামের এক কনস্টেবলের পায়েও গুলি লাগে। তবে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছে- ওই পুলিশ সদস্যের নিজের ছোড়া গুলিতেই তিনি নিজে আহত হন।

সংঘর্ষের পরের দিন আজ শুক্রবার সকালে বিএনপি ও ছাত্রদলের প্রায় ২শ’ নেতাকর্মীকে আসামী করে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এসআই অনুপ চৌধুরী বাদি হয়ে ৪৭ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতনামা আরোও ১৫০ জনকে আসামী করে মামলাটি দায়ের করা হয়। মামলায় প্রধান আসামী হিসেবে বিএনপির কেন্দ্রীয় সহ-স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক ও কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক দলের সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট সামসুজ্জামান জামান এর নাম রয়েছে বলে কোতোয়ালি পুলিশ সূত্র নিশ্চিত করেছে।

মামলায় কাদেরকে আসামী করা হয়েছে সে ব্যাপারে মুখ খুলতে নারাজ সিলেট মহানগর পুলিশ (এসএমপি) কর্তৃপক্ষ। তারা বলছেন তদন্তের স্বার্থে এই নাম প্রকাশ করা হচ্ছে না। মামলায় অস্ত্রধারীরা আসামী কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে মুখ খুলতে রাজি হননি ভারপ্রাপ্ত কর্মকতা ওসি গৌছুল হোসেন। তিনি বলেন- মামলার স্বার্থে আমরা এ বিষয়ে কোন কিছু বলতে চাচ্ছিনা।

সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার মুহম্মদ আবদুল ওয়াহাব বলেন- ‘মামলা দায়ের করা হয়েছে। জনগণের নিরাপত্তা নিশ্চিতে আমরা অপরাধীদের গ্রেফতারে সচেষ্ট রয়েছি। পাশাপাশি অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদেরকেও ধরতে পুলিশ চেষ্টা চালাচ্ছে।’

প্রসঙ্গত, অ্যাডভোকেট সামসুজ্জামান জামান দীর্ঘদিন ধরে দেশের বাইরে ছিলেন। খালেদা জিয়ার সিলেট সফরের দিন থেকেই সিলেটের রাজনীতির মাঠে হঠাৎ তাকে দেখা যায়। ৫ ফেব্রুয়ারি সিলেট সার্কিট হাউসে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার সাথেও দেখা করেন জামান।

Sharing is caring!

Loading...
Open