নাবিল রাজা ও কাজী মেরাজকে আসামী করে শিমু হত্যা মামলা , এজাহার দাখিল


নিজস্ব প্রতিবেদক :: জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর শোভাযাত্রায় ছুরিকাঘাতের ঘটনায় নিহত সিলেট মহানগর ছাত্রদলের সাবেক সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল হাসনাত শিমু (৩২) হত্যাকান্ডে অবশেষে মামলা দায়ের হয়েছে। সিলেট মহানগর পুলিশের কোতোয়ালি মডেল থানায় মামলাটি দায়ের করেন নিহত শিমুর এক আত্মীয়।

বুধবার রাত পৌণে ১২ টার দিকে মামলাটি (নং-০৭(০১)১৮) রেকর্ড করা হয়। মামলায় কয়েকজনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতনামা কয়েকজনকে আসামী করে এজাহার দাখিল করেছেন নিহত শিমুর মামা তারেক আহমদ লস্কর। তিনি শান্তিবাগ বালুচরের বাসিন্দা।

জেলা ছাত্রদলের একটি সূত্রে জানাগেছে মামলায় প্রধান আসামী করা হয়েছে মহানগর ছাত্রদল নেতা নাবিল রাজা চৌধুরী উরফে নাবিন চৌধুরীকে। ২ নম্বর আসামী হিসেবে রয়েছেন মদন মোহন কলেজ ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি কাজী মেরাজ।

এছাড়াও আসামীদের তালিকাতে আরোও নাম রয়েছে ছাত্রদল কর্মী মিজানুর রহমান সুজন, জাহেদ আহমদ, জাকি, ইমাদ উদ্দিন, নাহিয়ান রিপন, তুষারের। এছাড়া অজ্ঞাতনামা হিসেবে আরো ৬/৭ জনের নাম রয়েছে।

বুধবার রাতে মামলা তালিকাভুক্তির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গৌছুল হোসেন।

তবে তদন্তের স্বার্থে আসামীদের নাম ঠিকানা জানাতে চাননি ওসি গৌছুল হোসেন।

প্রসঙ্গত, গত সোমবার বিকাল পৌণে তিনটায় নগরীর কোর্টপয়েন্ট এলাকাতে ছাত্রদলের মিছিলে ছুরিকাঘাত করা হয় ছাত্রদল নেতা শিমুকে। পরে মেডিকেলে নেয়া হলে তার মৃত্যু হয়। তিনি শহরতলির আরামবাগ এলাকার বাসিন্দা আবদুল আজিজের ছেলে। মঙ্গলবার দুই দফা জানাযা শেষে তাকে হযরত শাহজালাল (রহ.) কবরস্থানে দাফন করা হয়।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close