২০১৮ সালে খালেদা জিয়াই প্রধানমন্ত্রী হবেন–ফখরুল

সুরমা টাইমস ডেস্ক::

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, অনেকেই বলছেন নির্বাচনে দেশনেত্রী (খালেদা জিয়া) ছাড়া যাব না। আরে আমরা নির্বাচনে যাব, দেশনেত্রীও যাবেন। সেই নির্বাচনের মাধ্যমে ২০১৮ সালে খালেদা জিয়াই প্রধানমন্ত্রী হবেন। বরং আওয়ামী লীগ নির্বাচনে থাকবে না। কারণ, তারা ভালো করেই জানে নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে তাদের পরিণতি কী হবে।

শনিবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, আমরা আছি, লড়াই করেছি, লড়াই করে যাচ্ছি, লড়াই করব। তবুও ২০১৮ সালে আমরা অবশ্যই জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করব।

দলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বিএনপি মহাসচিব বলেন, সংগঠন, আন্দোলন এবং নির্বাচনের জন্য এক সঙ্গে প্রস্ততি নিতে হবে। আন্দোলন করেই নির্বাচন আদায় করে ক্ষমতায় যেতে হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

মির্জা ফখরুল আরও বলেন, ২০১৮ সাল হবে খালেদা জিয়ার বছর, তারেক রহমানের বছর, এদেশের মানুষ যারা মুক্তিযুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেছেন, তাদের বছর।

ফখরুল বলেন, ক্ষমতায় গিয়ে আমাদের কৃষক-শ্রমিক-মেহনতি মানুষদের সমস্যার সমাধান করব, দেশের উন্নয়ন করব। এই জন্য আমরা রাজনীতি করছি। আমরা এখানে শুধু মিটিং করে ডুগডুগি বাজাব এজন্য আসিনি। এই রাজনীতিরও বিজ্ঞান আছে। তা হলো, সংগঠন-আন্দোলন এবং নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতায় যাওয়া।

ফখরুল আরও বলেন, এই সরকারের লজ্জ-শরম বলে কিছু নেই। এই সরকার সব দিক দিয়ে বাংলাদেশকে ফোঁকলা করে ফেলেছে। সরকার পরিকল্পিতভাবে পার্লামেন্ট ধ্বংস করেছে, পরিকল্পিতভাবে প্রশাসনকে সম্পূর্ণভাবে দলীয়করণ করে অযোগ্য প্রশাসন তৈরি করেছে; যারা ঘুষ আর দুর্নীতি ছাড়া কিছু বুঝে না।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী সবসময় বলেন, আওয়ামী লীগ বাংলাদেশকে যা দিয়েছেন তা অন্য কেউ দিতে পারেনি। বাংলাদেশের মানুষকে প্রতারণার মধ্য দিয়ে, ছলনার মধ্য দিয়ে যে অবস্থায় নিয়ে এসেছেন সেটা রক্ষা করবেন কী করে সেটার কথা আগে বলেন।

সূত্র:: বাংলাদেশ জার্নাল

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close