সৌন্দর্যের রানী ‘ক্লিওপেট্রা’র গোপন রহস্য!

সুরমা টাইমস ডেস্ক:: ইতিহাস অনুযায়ী পৃথিবীর সবচেয়ে সুন্দরী মহিলা ছিলেন ক্লিওপেট্রা। সমস্ত পুরুষরাই নাকি তাঁকে নিজের রানি বানানোর স্বপ্ন দেখতেন। কিন্তু ক্লিওপেট্রা কীভাবে নিজের পরিচর্চা করতেন, সেটা জানেন না অনেকেই। বর্তমানে সকল নারীই তাঁর মতোই সুন্দরী হয়ে উঠতে চান। তাই আপনাদের জন্য ক্লিওপেট্রার সৌন্দর্যের কিছু গোপন রহস্য তুলে ধরা হলো। এগুলি ব্যবহার করলে আপনিও হয়ে উঠবেন আপনার মনের মানুষের ‘ক্লিওপেট্রা’।

ক্লিওপেট্রার সৌন্দর্যের প্রধান চাবিকাঠি ছিল তাঁর ‘ফেমাস মিল্ক বাথ’। এই মিল্ক বাথ তৈরি করতে এক লিটার দুধে ছোট এক কাপ মধু মিশিয়ে নিন। খেয়াল রাখবেন যাতে দুধ খুব বেশি গরম না হয়। ফোটানো দুধ একেবারেই ব্যবহার করবেন না। কারণ এতে দুধের মেডিসিনাল উপাদান নষ্ট হয়ে যায়৷ দুধ গরম হলে মুধর গুণও নষ্ট হতে পারে।

এবার হালকা গরম জলে দুধের মিশ্রণ মিশিয়ে নিন। ২০ মিনিট এই জলে শরীর ভিজিয়ে রাখুন। মিল্ক বাথের পর স্ক্রাবিং অবশ্যই প্রয়োজন৷ ৩০০ গ্রাম সি-সল্টের সঙ্গে আধকাপ ক্রিম মিশিয়ে সারা শরীরে লাগিয়ে স্ক্রাবিং করে নিন। এতে ত্বক অনেক বেশি মসৃণ হবে ও সানবার্নের প্রভাবও কমবে।

মুখের ত্বকে সতেজ রাখতে ফেস মাস্ক অবশ্যই জরুরী। মধু ও দুধের তৈরি মাস্ক মুখে ব্যবহার করুন৷ মধু ও দুধ সমান পরিমাণে মিশিয়ে সারা মুখে মাখিয়ে রাখুন। আধঘণ্টা পর ঠান্ডা জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এর পর প্রয়োজন ক্লে মাস্ক৷ মুলতানি মাটি, মধু, টক দই ও লেবুর রস একসঙ্গে মিশিয়ে মুখে লাগিয়ে ২০ মিনিট রেখে দিন। এরপর প্রথমে গরম জল ও পরে ঠান্ডা ডল দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এছাড়াও প্রতিদিন দু’বার করে অ্যাপেল সিডার ভিনিগার নিয়ে মুখ ধুয়ে নিন।

মাথার চুল ভাল রাখতে মাথায় অলিভ অয়েল ব্যবহার করুন। এছাড়াও নিয়মিত হেনা চুলের জন্য উপযোগী। কাজের চাপে অনেকের পক্ষেই হয়তো প্রতিদিন এটি ব্যবহার করা সম্ভব নয়। তাও সপ্তাহে অন্তত তিনদিন চুলে হেনা ব্যবহার করুন।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close