নগরীর উন্নয়ন কার্যক্রমে নগরবাসীর সহযোগিতা কামনা করলেন মেয়র আরিফ

সুরমা টাইমস ডেস্ক:: হযরত শাহজালাল (রহ.) মাজারের সামনে প্রায়ই ঘটে দূর্ঘটনা। সড়ক সঙ্কীর্ণ থাকায় প্রায়ই এ দূর্ঘটনা ঘটে। এতে দেশের বিভিন্নস্থান থেকে আসা লোকজন পড়েন চরম বিপাকে। আর যানজট ওই এলাকার নিত্য সঙ্গী। এবার চৌহাট্টা থেকে আম্বরখানা পর্যন্ত সড়ক প্রশস্থকরনের কাজ শুরু হয়েছে।

বুধবার দরগাগেইট নুরজাহান হাসপাতালের সামনের দেওয়াল ভেঙ্গে দিনের কার্যক্রম শুরু করেন সিসিক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী।

সকালে নগরীর বিভিন্নস্থানে উচ্ছেদ অভিযান চালানোর পর দুপুরে মেয়র যান দরগাগেইট এলাকায়। সেখানে নুরজাহান হোটেল ও নুরজাহান হাসপাতালের বহুতল ভবনের দেওয়াল ভেঙ্গে সড়ক প্রশস্ত করার কাজের উদ্ধোধন করেন। এ সময় দরগাগেইট এলাকার ব্যবসায়ীরাও তাকে সহযোগীতার আশ্বাস দেন।

এ সময় তিনি বলেন- নাগরিক সুবিধা বাড়ানোর জন্য যা যা করার সেটি করা হবে। নগরীর উন্নয়ন কার্যক্রমে নগরবাসীর সহযোগিতা কামনা করে মেয়র বলেন, সবাই নগরীর উন্নয়নে ঐক্যবদ্ধ হলে একদিন সিলেট হবে সকলের কাছে আদর্শ নগরী। আমাদের ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য একটি আদর্শ নগরী হিসাবে গড়ে তোলাই তার মূল লক্ষ বলে জানান।

তিনি বলেন- ওই রোডে হযরত শাহজালাল (রহ.) মাজার। এখানে প্রতিদিন শত শত ভক্তরা আসেন। হযরত শাহজালাল (রহ.) মাজারে সামনের পরিবেশ দেখে অনেকেই কষ্ট পান। মাজারের সামনে এই অবস্থা উত্তোরনে সামনের রাস্তা বড় করা জরুরী হয়ে পড়েছে এতে সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন।

এ সময় মেয়র আরো বলেন- অপরিকল্পিত নগরায়নের কারনে আমাদের সড়ক অনেকটা ছোট হয়ে পড়েছে। সবাই সহযোগিতা করলে কিছুটা হলেও সড়ক বড় করা যাবে। এ সময় তিনি ওই এলাকার ব্যবসায়ীসহ সকল লোকদের সঙ্গে সড়ক প্রশস্ত করার কাজে সহযোগিতার আহবান জানান।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- কাউন্সিলর দেলওয়ার হোসেন সজিব, তৌফিকুল হাদি, সিটি করপোরেশনের নির্বাহী প্রকৌশলী, আলী আকবর, আব্দুল আজিজ, শামসুল হক, জয়দেব বিশ্বাস, কর্মকর্তা চন্দন দাশ, জাহাঙ্গীর আলম প্রমূখ।

Sharing is caring!

Loading...
Open