যশোরে ‘জঙ্গি আস্তানা’ ঘেরাও, যে কোন সময় অভিযান

জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে যশোর শহরের ঘোপ নোয়াপাড়া সড়কের একটি বাড়ি ঘিরে রেখেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। সোয়াটের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে রবিবার রাত ১০টা থেকে বাড়িটি ঘিরে রাখা হয়েছে।

পুলিশের ধারণা, এই বাড়িতে গুলশানের হোলি আর্টিজান রেস্তোরাঁয় হামলার সঙ্গে জড়িত ও পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত জঙ্গি নুরুল ইসলাম মারজানের বোন থাকতে পারেন।

আজ সোমবার সকাল সাড়ে নয়টার দিকে যশোরের পুলিশ সুপার আনিসুর রহমান ঘটনাস্থলে পৌঁছে অভিযান-পূর্ব প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

ইতিমধ্যেই ঢাকা থেকে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট, সোয়াট, বোম্ব ডিজপোজল ইউনিট, পুলিশ হেড কোয়ার্টারসহ আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা যশোরে এসে পৌঁছেছেন। অল্প সময়ের মধ্যে এখানে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর অভিযান শুরু হবে বলে পুলিশ সুপার নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে যশোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নাইমুর রহমান সাংবাদিকদের জানান, সোয়াটের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে বাড়িটি ঘিরে রাখা হয়।

তিনি আরো জানান, সোমবার ভোর পাঁচটায় সোয়াটের এএসপি মাহবুবের নেতৃত্বে একটি দল অভিযানের জন্য যশোরে এসে পৌঁছেছে। তারা এলাকা রেকি করে বিশ্রামে গেছেন। অল্প সময়ের মধ্যেই তারা ঘটনাস্থলে পৌঁছে জঙ্গি আস্তানায় অভিযান শুরু করবেন।

কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ কে এম আজমল হুদা জানান, জঙ্গি আছে বলে ঢাকা থেকে তথ্য দেওয়ার পর ওই বাড়ি ঘিরে রাখা হয়। সকালে কাউন্টার টেররিজম ইউনিট ও সোয়াটের একটি দল যশোর এসে পৌঁছেছে। তারা অভিযানে অংশ নেবে। বাড়িটির মালিক হায়দার আলী যশোর জিলা স্কুলের শিক্ষক বলে জানায় পুলিশ।

পুলিশের ঘিরে রাখা চারতলা বাড়িটিতে জঙ্গি মারজানের বোন খাদিজা থাকতে পারে বলে জানিয়েছেন খুলনা রেঞ্জের ডিআইজি দিদার আহমেদ। ডিআইজি বলেন, ‘আমাদের কাছে খবর রয়েছে; ওই ফ্লাটে ভাড়াটিয়া মশিয়ার রহমানের স্ত্রী খাদিজা জঙ্গি মারজানের বোন। আজ সোমবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

Sharing is caring!

Loading...
Open