শিবির সন্দেহে আটক রাবির ৭ শিক্ষার্থী জেলহাজতে

সুরমা টাইমস ডেস্ক :: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) আবাসিক হল থেকে শিবির সন্দেহে আটক ১২ শিক্ষার্থীর মধ্যে নাশকতা মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে সাত জনকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। সোমবার তাদের জেলেহাজতে পাঠানো হয়েছে বলে নিশ্চিত করেন মতিহার থানার ওসি (তদন্ত) মাহবুব আলম।

বাকি পাঁচ জন অসুস্থ থাকায় তাদেরকে আদালতে হাজির করা হয়নি। তবে খুব শীঘ্রই তাদেরকে আদালতে হাজির করা হবে বলে তিনি জানান।

এর আগে রোববার নগরীর মতিহার থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সেলিম রেজার দায়েরকৃত মামলায় তাদের গ্রেফতার দেখানো হয়। পরে সোমবার তাদের আদালতে হাজির করা হলে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত।

তারা হলেন- শিবিরের বিশ্ববিদ্যালয় শাখার জোহা হলের সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন (ইসলামের ইতিহাস, মাস্টার্স), আরিফুল ইসলাম (ফার্সি ভাষা, মাস্টার্স), রাকিব আহমেদ (আইন, ২য় বর্ষ), আব্দুর রাকিব (ইসলামিক স্টাডিজ, ৩য় বর্ষ), শরিফুল ইসলাম (পরিসংখ্যান, ৪র্থ বর্ষ), অলিউল ইসলাম (আরবি, মাস্টার্স), আবু জাফর (আরবি সাহিত্য মাস্টার্স)।

নগরীর মতিহার থানার ওসি (তদন্ত) মাহবুব আলম বলেন, ‘চলতি বছরের ১৯ জানুয়ারি বিনোদপুরে নাশকতার উদ্দেশ্যে জড়ো হয়েছিলেন এবং বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন এলাকায় বিভিন্ন সময়ে সংঘটিত নাশকতার ঘটনায় তারা অংশ নিয়েছিলেন বলে জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে।

‘তাদের বিরুদ্ধে পুলিশ বাদী হয়ে নাশকতা ও পুলিশের ওপর হামলার অভিযোগে মামলা দায়ের করেছে। এদের মধ্যে থানা হেফাজতে থাকা সাত জনকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।’

উল্লেখ্য, গত ৮ আগস্ট দিবাগত রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের সোহরাওয়ার্দী হল থেকে শিবির সন্দেহে ১২ শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা।

Sharing is caring!

Loading...
Open