৩ বছরেও শেষ হয়নি বড়লেখা বন্যা আশ্রয় কেন্দ্র ও অ্যাকাডেমিক ভবন নির্মাণ প্রকল্প…।

নিজস্ব প্রতিনিধি : মৌলভীবাজারের বড়লেখার হাকালুকি হাওরপারের ইউনাইটেড উচ্চ বিদ্যালয়ে বন্যা আশ্রয় কেন্দ্র ও অ্যাকাডেমিক ভবন নির্মাণকাজ শুরুর ৩ বছর অতিক্রান্ত হলেও আজও কাজ সম্পন্ন করেনি সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার। ওয়ার্ক অর্ডার অনুযায়ী- নির্মাণকাজ ১ বছরের মধ্যে শেষ করার কথা। কিন্তু ৩ বছরেও তা শেষ না-করায় স্কুলের শ্রেণি কার্যক্রম ও অফিস কাজকর্ম মারাত্মকভাবে ব্যাহত হচ্ছে। শ্রেণিকক্ষের অভাবে ঝড়ে বিধ্বস্ত একটি ঘরে মারাত্মক ঝুঁকি নিয়ে চলছে বিজ্ঞানের ক্লাস। লাইব্রেরি কার্যক্রম বন্ধ রেখে ৩ বছর ধরে এ কক্ষ ব্যবহার হচ্ছে শিক্ষক মিলনায়তন ও প্রধান শিক্ষকের অফিস হিসেবে।

অনুসন্ধানে জানা গেছে- ২০১৩ সালের ৩ ডিসেম্বর মৌলভীবাজার শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর ইউনাইটেড উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রায় ৯৪ লাখ টাকা ব্যয়সাপেক্ষে দুই তলা বিশিষ্ট অ্যাকাডেমিক ভবন কাম বন্যা আশ্রয় কেন্দ্র নির্মাণের টেন্ডার আহ্বান করে। ১২ মাসে কাজ সম্পন্ন করার শর্তে ২০১৪ সালের ১৬ মার্চ নির্মাণ কাজের ওয়ার্ক অর্ডার পায় মৌলভীবাজারের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মেসার্স তোফায়েল আহমদ। ওই বছরের ১৮ আগস্ট প্রধান অতিথি হিসেবে ওই অ্যাকাডেমিক ভবন কাম বন্যা আশ্রয় কেন্দ্রের নির্মাণকাজের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য শাহাব উদ্দিন।

ওয়ার্ক অর্ডার অনুযায়ী- ২০১৫ সালের ১৭ আগস্টের মধ্যে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারের নির্মাণকাজ সম্পন্ন করার কথা। কিন্তু কাজ শুরুর প্রায় ৩ বছর অতিক্রান্ত হলেও নির্মাণকাজ সম্পন্ন না-হওয়ায় স্কুলের শিক্ষার্থীদের শ্রেণি কার্যক্রম ও শিক্ষকদের অফিস কার্যক্রম মারাত্মকভাবে ব্যাহত হচ্ছে। ঠিকাদারের গাফিলতির কারণে সার্বিকভাবে স্কুলের ৫ শতাধিক শিক্ষার্থী ও এলাকার বন্যাকবলিত লোকজন দুর্ভোগের শিকার হচে্ছ।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close