সিলেট পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেসী কনফারেন্স অনুষ্ঠিত

শনিবার(১৪ জানুয়ারি) সকাল ১০টায় চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত সিলেটের ব্যবস্থাপনায় আদালতের কনফারেন্স রুমে চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কাজী আব্দুল হান্নানের সভাপতিত্বে ও জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বেগম ইসরাত জাহানের সঞ্চালনায় এক পুলিশ ম্যাজিস্ট্রেসী কনফারেন্স সভা অনুষ্ঠিত হয়।
এতে মুক্ত আলোচনা পর্বে বিচার বিভাগীয় কর্মকর্তা, আইন কর্মকর্তা, পুলিশ কর্মকর্তা, বনবিভাগীয় কর্মকর্তা, সিভিল সার্জন, বিভাগীয় প্রধান সিওমেক সহ সিলেট জেলার সকল থানার অফিসার ইনচার্জগণ আইনের বিভিন্ন সমস্যার কথা তুলে ধরেন। যার ভেতর এম.সি দেরীতে ও এম.সি’র সাথে আইও’র রিপোর্টের সাথে অমিল থাকার কারনে মামলার নিষ্পত্তিতে জটিলতা সৃষ্টি হয়েছে। সমস্যাগুলির সমাধান সম্পর্কে সিলেট জেলার চীফ কনফারেন্সের সভাপতি কাজী আব্দুল হান্নান, সিলেট এম এজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালের সহকারি অধ্যাপক ও বিভাগীয় প্রধান ডাক্তার আবু আহমদ আদিলুজ্জামান এর দৃষ্টি আকর্ষণ করলে পরবর্তীতে এম.সি দ্রুতগতিতে দেওয়ার ব্যবস্থা করবেন এবং উপস্থিত সকলকে তাহার মোবাইল নাম্বার প্রদান করেন। সভাপতির ভাষনে সিলেট জেলার মাননীয় চীফ কাজী আব্দুল হান্নান বলেন, আমাদের সংশ্লিষ্ট সকলকে একটি টিম হয়ে আইনের বিভিন্ন বিধি বিধানের মধ্যে সীমাবদ্ধ থেকে কাজ করতে হবে। বিচার কাজ দ্রুত গতিতে করতে হলে একে অপরের সহযোগীতায় অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। সমাপনী ভাষনে তিনি বলেন, অদ্যকার সভায় আলোচিত বিষয়সমূহ গুরুত্বসহকারে বিবেচনা করা হবে। গত ১৫-১৬ অর্থ বছরে ৩ হাজারের বেশী মামলা নিষ্পত্তি হয়েছে। সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগীতা থাকলে ছোটখাটো ত্র“টি বিচ্যুতি পরস্পর শান্তিপূর্ণ আলাপ আলোচনার মাধ্যমে সমাধান করতে পারলে গত বছরের তুলনায় এই বছর আরো দ্বিগুন মামলা নিষ্পত্তি করা সম্ভব হবে বলে তিনি আশ্বাস প্রদান করেন।
এসময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট আবু সাফায়াত মুহাম্মদ শামসুল ইসলাম, সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্র্যট মো. নজরুল ইসলাম, সায়েদ মাহবুবুল ইসলাম, সুবর্ণা সিনহা, শারমনি খানম নিলা, ইসরাত জাহান, ফারজানা সাকিলা সুমু চৌধুরী, কাকন দে, ভারপ্রাপ্ত প্রশাসনিক কর্মকর্তা মো. কামাল উদ্দিন চৌধুরী সহ বিভিন্ন থানার ওসিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Sharing is caring!

Loading...
Open

Close