সিলেটের তিন পণ্যের লাইসেন্স স্থগিত, বিক্রিতে নিষেধাজ্ঞা

নিজস্ব প্রতিবেদক :: পণ্যের নিম্নমানের জন্য সারাদেশের বিভিন্ন কোম্পানির ২৫টি পণ্যে লাইসেন্স স্থগিত করেছে বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস অ্যান্ড টেস্টিং ইন্সটিটিউশন (বিএসটিআই)। এর মধ্যে সিলেটেরও তিনটি প্রতিষ্ঠান রয়েছে। এছাড়া একই অভিযোগে সিলেটের বাইরের দুটি প্রতিষ্ঠানের লাইসেন্স বাতিলও করেছে বিএসটিআই।

বিএসটিআই সম্প্রতি খোলাবাজার থেকে ২৭টি প্রতিষ্ঠানের পণ্যের নমুনা ক্রয় করে পরীক্ষা করে। পরীক্ষায় পণ্যগুলোর নি¤œমান ধরা পড়ে। এর প্রেক্ষিতে প্রতিষ্ঠানগুলোর লাইসেন্স বাতিল ও স্থগিত করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার এ সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে বিএসটিআই।

লাইসেন্স বাতিল অথবা স্থগিত করা প্রতিষ্ঠানগুলোর নিম্নমানের পণ্য মানোন্নয়ন করে পুনঃঅনুমোদন না নেয়া পর্যন্ত সংশ্লিষ্ট উৎপাদনকারী, সরবরাহকারী, পাইকারী ও খুচরা বিক্রেতাদের ওই পণ্য বিক্রি, বিতরণ, সংরক্ষণ ও বাণিজ্যিক বিজ্ঞাপন প্রচার থেকে বিরত থাকতে প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

একই সঙ্গে, নিম্নমানের পণ্যগুলো ২৪ ঘণ্টার মধ্যে বাজার থেকে প্রত্যাহার করে নিতে বলা হয়েছে। পাশাপাশি ভোক্তাদের প্রতিষ্ঠানগুলোর নিম্নমানের পণ্য না কিনতে পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

লাইসেন্স স্থগিত হওয়া সিলেটের প্রতিষ্ঠান তিনটির পণ্যগুলোর মধ্যে রয়েছে নিশিতা ফুডসের সুজি, মঞ্জিল ফুডস অ্যান্ড প্রোডাক্টসের হলুদের গুড়া ও মধুফুল অ্যান্ড প্রোডাক্টসের লাচ্চা সেমাই।

এছাড়াও দেশের অন্য যেসব প্রতিষ্ঠানের পণ্য বিক্রি বন্ধ করে দেয়া হয়েছে- ঢাকার দক্ষিণ গোড়ানের বাঘাবাড়ী স্পেশাল ঘি, খুলনা দৌলতপুরের গ্রীন ল্যান্ডস মিল্ক প্রোডাক্টসের ‘মধু’, কুষ্টিয়া জেলখানা মোড়ের শান ফুডের ‘হলুদের গুঁড়া’, খুলনা ফুলতলার মধুমতি সল্ট ইন্ডাস্ট্রিজের আয়োডিনযুক্ত লবণ ‘মধুমতি’, ঝালকাঠি কাঠপট্টির জেদ্দা ফুড ইন্ডাস্ট্রিজের ‘লাচ্ছা সেমাই’, ঝালকাঠি ফরিয়াপট্টির নূর সল্ট ইন্ডাস্ট্রিজের আয়োডিনযুক্ত লবণ ‘নূর স্পেশাল’, পাংশার অমৃতনগরের অমৃত ফুড প্রোডাক্টসের ‘লাচ্ছা সেমাই’, ঝালকাঠি আড়ৎদারপট্টির নিউ ঝালকাঠি সল্ট মিলসের আয়োডিনযুক্ত লবণ ‘দাদা সুপার’ম ঝালকাঠি ফরিয়াপট্টির কোয়ালিটি সল্ট ইন্ডাস্ট্রিজের আয়োডিনযুক্ত লবণ ‘তিন তীর’, ঝালকাঠি মনোহরীপট্টির লাকী সল্ট ইন্ডাস্ট্রিজের আয়োডিনযুক্ত লবণ ‘মদিনা, স্টারশীপ’, ঝালকাঠি স্টেশন মহল্লার তাজ সল্ট ইন্ডাস্ট্রিজের আয়োডিনযুক্ত লবণ ‘তাজ’, রাজশাহী বিনোদপুরের কাশেম ট্রেডার্সের মরিচের গুঁড়া ‘ডলফিন’, রাজশাহী বিনোদপুরের কাশেম ট্রেডার্সের হলুদের গুঁড়া ‘ডলফিন’, রাজশাহী বিনোদপুরের আমিরুল ট্রেডার্সের মরিচের গুঁড়া ‘সূর্য’, চট্টগ্রাম জালালাবাদ মিঠাই সুইটস অ্যান্ড বেকারীর ‘লাচ্ছা সেমাই’, চট্টগ্রাম সীতাকুন্ডের আর ফুড ইন্ডাস্ট্রিজের ‘ময়দা’, চট্টগ্রাম ষোলশহরের ওয়েল ফুড অ্যান্ড বেভারেজের ‘লাচ্ছা সেমাই’, চট্টগ্রামের ঢাকা ট্রাস্ক রোডের রূপসা ফুড প্রোডাক্টসের ‘ফারমেন্টেড মিল্ক রূপসা’, চট্টগ্রামের আছাদগঞ্জের ইমতিয়াজ ব্রেড অ্যান্ড ফুড প্রোডাক্টসের বিস্কুট ‘মেহেদী’, চট্টগ্রাম ফিরিঙ্গিবাজারের মিষ্টি মেলা ফুড প্রোডাক্টসের লাচ্ছা সেমাই ‘মিষ্টি মেলা’, বি-বাড়ীয়া চান্ডিয়ারার তাঈয়েবা ফুড প্রোডাক্টসের চানাচুর ‘মক্কা’ ও চট্টগ্রামের পাঁচলইশের মধুবন ব্রেড অ্যান্ড বিস্কুট ইন্ডাস্ট্রিজের ‘লাচ্ছা সেমাই’।

এছাড়া চট্টগ্রামের এস এস কনজ্যুমার প্রোডাক্টসের মরিচের গুঁড়া এবং নওগাঁর কিরণ ট্রেডার্সের লাচ্ছা সেমাই’র বিএসটিআই’র লাইসেন্স বাতিল করা হয়েছে।

Sharing is caring!

Loading...
Open