খাদিম নগরের মেম্বার আনছার আলী ও তার বাবাকে পেটালো ইয়াবা ব্যবসায়ী

নিজস্ব প্রতিবেদক :: সিলেট সদর উপজেলার খাদিমনগর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ড এর মেম্বার মোঃ আনছার আলী (৩৫) ও তার বাবা আনফর আলী (৬০) এর উপর হামলা চালিয়েছে সাহেবের বাজার এলাকার কান্দিরপথ গ্রামের মৃত সোনাফর আলীর ছেলে ইয়াবা ব্যবসায়ী মঞ্জুর হোসেন (৩০)।
১৬ মে বৃহস্পতিবার বিকাল সাডডে ৩টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। আহত দু জনকে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
জানা যায়, আনসার আলী মেম্বার ইউনিয়ন পরিষদের কাজ শেষ করে বিকাল অনুমান ৩ টার দিকে বাড়ী আসেন। আনসার আলী মেম্বার বাড়ীতে অবস্থান করছেন জেনে
ইয়াবা ব্যবসায়ী মনজুর হোসেন (৩০), তার ভাই ফখরুল ইসলাম (৩২), নজরুল ইসলাম (২৮)। মেম্বার আনসার আলীর বাড়ীতে এসে তাদের উপর হামলা চালায়। এ সময় তার বাবা বাধা দিলে তার ওপরও হামলা চালিয়ে দুজনকে গুরুতর আহত করে। স্থানীয়রা উদ্ধার করে তাদেরকে সিলেট এম এজি ওসমানী মেডিকেল হাসপাতালে পাঠানো
হয় । ইয়াবা ব্যবসায়ী মঞ্জুর দীর্ঘদিন থেকে এলাকায় ইয়াবা ব্যবসা করে আসছে কেউ কোনদিন তার ভয়ে মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছে না। বিভিন্ন সময় পুলিশ ও ডিবি পুলিশ অভিযান চালিয়েছে।
হামলায় আহত ইউপি মেম্বার আনছার আলী জানান, মনজুর হোসেন পুলিশের তালিকাভুক্ত ইয়াবা ব্যবসায়ী। আজ বৃহস্পতিবার তাকে ইয়াবা ব্যবসা ছেড়ে দিতে অনুরোধ করি আমি। তখন মনজুর জবাব দেয়, এটা আমার ব্যক্তিগত বিষয়। আমি তাকে ফের বলি, এসব ঠিক নয়, এতে এলাকার বদনাম হচ্ছে। আর সে যদি ইয়াবা ব্যবসা না ছাড়ে তবে তাকে গ্রেফতার করতে পুলিশকে অনুরোধ করবো।এ নিয়ে আমার সাথে কথা কাটা কাটির একপর্যায়ে সহযোগীদের নিয়ে আমার ওপর হামলা চালায় মনজুর। তার হামলা থেকে আমার বাবাও রেহাই পাননি। আমরা ন্যায় বিচারের স্বার্থে আইনের আশ্রয় নিব।
এ বিষয়ে অভিযুক্ত মনজুর হোসেনের সাথে মোবাইলে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও তার সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি। এ বিষয়ে কথা বলতে স্থানীয় কালাগুল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এস আই আব্দুল আজিজকে কল করা হলে তিনি কল কেটে দেন।
এ বিষয়ে এয়ারপোর্ট থানার ওসি শাহাদাত হোসেন জানান একজন জনপ্রতিনিধির উপর হামলা ন্যাক্কারজনক। দোষিদের দের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Sharing is caring!

Loading...
Open