গোয়াইনঘাটে পল্লী বিদ্যুতের ভেলকিবাজিতে ট্রান্সফর্মার চুরির হিড়িক

গোয়াইনঘাট প্রতিনিধি :- সিলেট পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর আওতাধীন জৈন্তাপুর, গোয়াইনঘাট, কোম্পানীগঞ্জ, কানাইঘাট ও সিলেট সদর উপজেলা। এর আওতাধীন উপজেলাগুলোতে লোডশেডিংয়ের আশংকা নেই বলে কর্তৃপক্ষের জোরালো দাবি। কিন্তু কর্তৃপক্ষের জোরালো আবেদন নাকোঁচ করে বিদ্যুৎ চলতি সময়ে ভেলকিবাজিতে মেতে ওঠেছে। আর পল্লী বিদ্যুতের এই লুকোচুরি খেলাটি গ্রাহকদের জনজীবনে চরম দুর্ভোগ সৃষ্টি করছেম সেই সাথে চলছে ট্রান্সফর্মার চুরির হিড়িক। বিদ্যুৎ চলে যাওয়ার সাথে সাথে ট্রান্সফর্মারের গুরুত্বপূর্ণ যন্ত্রপাতি চুরির বিষয়টিকে গ্রাহকরা দেখছেন ভিন্ন চোখে। গত ১১ মে ২০১৯ শুক্রবার তারাবির নামাজের মধ্যে বিদ্যুতের লুকোচুরি খেলার সময় উপজেলার নন্দীরগাঁও ইউনিয়নের বহর গ্রাম থেকে একইসাথে দুইটি ট্রান্সফর্মারের গুরুত্বপূর্ণ যন্ত্রপাতি চুরির বিষয়টি নিয়ে অনেক গ্রাহক খোদ সিলেট পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর অন্যতম অভিযোগ কেন্দ্র সিলেট সদর উপজেলার শিবের বাজার অভিযোগ কেন্দ্রের কর্তাব্যক্তিদের দিকে অভিযোগের আঙুল উঠাচ্ছেন। গ্রাহকরা বলেন- যে কোন সময় বহর এলাকায় বিদ্যুতের ট্রান্সফর্মার চুরির সময় শিবের বাজার থেকে বিদ্যুৎ বন্ধ থাকে। যেমনি ভাবে শুক্রবারেও চুরির সময় শিবের বাজার থেকে বিদ্যুৎ বন্ধ ছিল।
এ ব্যাপারে বহর গ্রামের স্থায়ী বাসিন্দা, গোয়াইনঘাট উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও তরুণ আওয়ামী লীগ নেতা কামরুল হাসান বলেন- পল্লী বিদ্যুতের লুকোচুরি খেলার কারণেই দুইটি ট্রান্সফর্মার চুরি হয়েছে। কর্তৃপক্ষের কাছে নালিশ করে বলতে চাই আপনাদের লুকোচুরির কারণে চুরি হওয়া ট্রান্সফর্মার চুরি হয়েছে। আমরা বিভাগীয় তদন্তের মাধ্যমে ট্রান্সফর্মার চুরির আসল রহস্য উদঘাটন চাই।

Sharing is caring!

Loading...
Open