দক্ষিণ সুরমায় নবম শ্রেণীর ছাত্রীকে যৌন নিপীড়নের ঘটনায় শিক্ষক গ্রেফতার


নিজস্ব প্রতিবেদক : দক্ষিণ সুরমার নৈখাই হাজী মোহাম্মদ রাজা চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে যৌন নিপীড়নের ঘটনায় দায়েরকৃত মামলায় এক শিক্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আমিনুল ইসলাম চৌধুরী নামের ওই শিক্ষককে গতকাল মঙ্গলবার পুলিশ আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করেছে।

এর আগে সোমবার নিপীড়নের শিকার স্কুল ছাত্রীর ভাই বাদী হয়ে মহানগর পুলিশের মোগলাবাজার থানায় মামলা (নং-৫) দায়ের করেন। পরে দিবাগত রাত ৪টার দিকে পুলিশ অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতার আমিনুল ইসলাম চৌধুরী ওই স্কুলের ইংরেজি বিষয়ে খন্ডকালীন শিক্ষক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তিনি সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার আহমাবাদ গ্রামের মৃত আব্দুর রহিম চৌধুরী পুত্র।

মামলা সূত্রে জানা যায়, হাজী মোহাম্মদ রাজা চৌধুরী উচ্চ বিদ্যায়ের ইংরেজি বিষয়ে খন্ডকালীন শিক্ষক আমিনুল ইসলাম চৌধুরী বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের রুমে গত ৬ এপ্রিল শনিবার সকাল সোয়া ৯ টায় নবম শ্রেণির ওই ছাত্রীর স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেন। পরের দিন ৭ এপ্রিল ওই ছাত্রী স্কুলে দেরিতে যায়। ৮ এপ্রিলও স্কুলে দেরিতে যায়। ওই দিন শিক্ষক আমিনুল ক্লাসে গিয়ে ছাত্রীকে উদ্দেশ্য করে বলেন, এই ক্লাসে একটি খারাপ মেয়ে রয়েছে। সময়মত আমি তা প্রকাশ করবো। এরপর ছাত্রীটি স্কুলের শিক্ষক সুমিন আহমদকে বিষয়টি জানায়। শিক্ষক সুমিন আহমদ দু’জন মহিলা শিক্ষককে ঘটনাটির সত্যতা যাচাই করতে বলেন।

লাঞ্ছিত ছাত্রী মহিলা শিক্ষকদের জানায়, গত ১ এপ্রিল সকালে শিক্ষক আমিনুল তার শরীরে হাত দেন। এরপর ২ ও ৩ এপ্রিল তার স্পর্শকাতর স্থানে আমিনুল হাত দেন। বিষয়টি পরে প্রধান শিক্ষককে জানানো হয়। প্রধান শিক্ষক বিষয়টি বিদ্যালয়ে এডহক কমিটির সভাপতিকে অবগত করেন। এরপর রবিবার কমিটির সিদ্ধান্ত মোতাবেক শিক্ষক আমিনুল ইসলাম চৌধুরীকে বরখাস্ত করা হয়। এ ঘটনায় উপজেলা জুড়ে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।

আজ বুধবার বিদ্যালয়ের বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষার্থী অভিযুক্ত শিক্ষকের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবীতে বিক্ষোভ সমাবেশ করবেন বলে স্থানীয় সূত্র জানিয়েছে।

Sharing is caring!

Loading...
Open