সিলেট নগরীতে লন্ডনী কনে সেজে প্রতারণা!


নিজস্ব প্রতিবেদক:: সিলেট নগরীতে এক প্রতারক চক্রের প্রতারণার ফাঁদে পরে সর্বস্ব হারিয়ে এখন দিশেহারা হূমাইয়ুন মিয়া (ছদ্মনাম)। আশা ছিলো লন্ডনী কনে বিয়ে করে প্রবাসে পারি জমানোর। তাই তিনি লন্ডনী কনে বিয়ে করবেন। সানিয়া (ছদ্মনাম) নামে একজন লন্ডনী কনে এসেছে নগরীর উপশহরে বিয়ে দেয়ার জন্য। এমন খবর পান এক ঘটক মাধ্যমে বরের পিতা। তড়িঘড়ি করে বর ও বরের পিতা লন্ডনি কন্যার বাসা উপশহরে যান কনে দেখতে। প্রথম দেখায় বরের কনেকে পছন্দ হয়। ওইদিনই সেখানে কন্যার সাথে আংটি রদবদল ও বিয়ে ঠিক হয়। দু’দিন পরে বিয়ে হবে, সেই আশায় ঘটককের কিছু শর্তে পরের দিন বিয়ের অগ্রিম টাকা ও কনেকে স্বর্ণালঙ্কার দিয়েছিলেন বরের পরিবার।

শর্ত ছিলো সিলেট শহরে কনে পক্ষের অনেক দুশমন রয়েছে, তাই বিয়ের বিষয়টি নিজের পরিবারের লোক ছাড়া যেনো কেউ না জানে। আর বিয়ে হবে গোপণে স্থানীয় কোনো চাইনিজ রেস্টুরেন্টে এবং রেস্টুরেন্টের খাবার আর হলরুম ভাড়া দিবে কনে পক্ষ। গত ৫ এপ্রিল শুক্রবার বিয়ের দিন ধার্য করে অংটি বদল হয় বর-কনের মধ্যে। বিয়ে করে লন্ডনী বধূকে ঘরে তুলার জন্য সব আয়োজন করেছিলেন বরের পরিবার। তাই শুক্রবার বিয়ে করতে ঘটককের কথামতো বর সেজে কাজীসহ ৪০ জন বরযাত্রী নিয়ে গিয়েছিলেন নগরীর একটি চাইনিজ রেস্টুরেন্টে।

সেখানে গিয়ে কনে পক্ষের কারো দেখা না পেয়ে ঘটকের মোবাইল ফোনে কল করেন বরের পিতা। ঘটকের মোবাইল ফোন বন্ধ, কনেরও মোবাইল ফোন বন্ধ! অপেক্ষা করেন কনে পক্ষ আসবে। কিন্তু কেউ আসলো না! পরে কনের বাসায় গিয়েও কনে পক্ষের কাউকেই খোঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। তখন বরের পরিবার বুঝতে পারেন তারা প্রতারণার স্বীকার হয়েছেন।

বিষয়টি জানাজানির কারণে বরের পরিবারের লোক এই ভুয়া লন্ডনী কনের প্রতারণার জন্য সমাজে আজ মুখ তুলে কথা বলতে পারছেন না। আড়ালে সবাই তাদের নিয়ে হাসাহাসি করে। এবার তারা আইনের আশ্রয় নিচ্ছেন। খোঁজছেন সেই প্রতারক কনে সানিয়া কে।

সোমবার আমাদের কাছে আসে একটি ছবি। সেই ছবির সূত্র ধরে অনুসন্ধানে নামি আমরা। সন্ধান মিলে সেই প্রতারক ভুয়া লন্ডনী কনে সানিয়া ও তার চক্রের। প্রতারক লন্ডনী কনে সানিয়া একজন নারী নেত্রী। প্রভাবশালীদের যোগসাজশে অভিযোগের পাহাড় গড়েছেন তিনি।

কি তার আসল পরিচয়সহ বিস্তারিত আজ মঙ্গলবার রাত ১০টায় ছবিসহ প্রকাশ হবে-

Sharing is caring!

Loading...
Open