জাতীয় গণসংগীত প্রতিযোগিতা সিলেট বিভাগের প্রতিনিধি নির্বাচিত

‘সময়ের ভ্রান্তিতে টলো না, লড়াটা কখনওই ভুলো না’ এই প্রতিপাদ্যে এবারের দশম সত্যেন সেন জাতীয় গণসংগীত প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। জেলা পর্যায়ের প্রতিযোগিদের নিয়ে সিলেট বিভাগের বিভাগীয় প্রতিযোগিতা সম্পন্ন হয়েছে। রোববার (১৭ মার্চ) সকাল ১০টায় সিলেট কিন ব্রিজের পাশে সারদা স্মৃতি ভবনের সামনে জাতীয় সংগীত ও উদীচীর দলীয় সংগীতের মাধ্যমে বিভাগীয় প্রতিযোগিতার উদ্বোধন হয়। এরপর সম্মিলিত নাট্য পরিষদের মহড়া কক্ষে বিভাগীয় গণসংগীত প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।
সকাল ১০টায় বিভাগীয় পর্যায়ের প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন সুনামগঞ্জ জেলা সংসদের সভাপতি শীলা রায়। জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন কেন্দ্রীয় সংসদের সাবেক সহ-সভাপতি ব্যারিস্টার আরশ আলী, দলীয় পতাকা উত্তোলন করেন কেন্দ্রীয় সংসদের সহ সভাপতি ও বিভাগীয় কমিটির আহ্বায়ক মকবুল হোসাইন। এসময় উপস্থিত ছিলেন উদীচী সিলেটের সভাপতি এনায়েত হাসান মানিক, মৌলভীবাজার উদীচীর সাধারণ সম্পাদক ইউসুফ আলী, উদীচী সিলেটের সহ সভাপতি মাধব রায়, ডা. অভিজিৎ দাস জয়।
বিচারকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা থেকে আসা কেন্দ্রীয় উদীচীর অনিকেত আচার্য ও আরিফ রহমান।
সম্মিলিত নাট্য পরিষদের মহড়া কক্ষে আয়োজিত বিভাগীয় গণসংগীত প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে সিলেট, সুনামগঞ্জ ও মৌলভীবাজার জেলার জেলা পর্যায়ের বিজয়ীরা। এ প্রতিযোগিতায় বিভাগীয় পর্যায়ের ক বিভাগে প্রথম ও দ্বিতীয় হয়েছের যথাক্রমে মৌলভীবাজারের রুবাইয়েত ইসলাম অর্নি ও স্বস্তিকা চৌধুরী। খ-বিভাগে ১ম হয়েছেন সিলেটের সুমাইয়া ইসলাম শোভা এবং দ্বিতীয় হয়েছেন সিলেটেরই সঞ্চিতা পাল। গ-বিভাগে প্রথম হয়েছেন সিলেটের সন্দীপ দেব এবং শ্যামা রানী দেব। দলীয় পর্যায়ে প্রথম হয়েছে মৌলভীবাজারের ধ্রুবতারা ললিতকলা একাডেমী।
বিভাগীয় প্রতিযোগিতায় দলীয় পর্যায়ে উদীচী শ্রীমঙ্গল শাখা দ্বিতীয় স্থান লাভ করেছে। তারা জাতীয় পর্যায়ের প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতে পারবে না। এই বিজয়ীরা আগামী ২৮ মার্চ ঢাকাস্থ মহানগর নাট্যমঞ্চে জাতীয় গণসংগীত প্রতিযোগিতা ও উৎসবে অংশগ্রহণ করবেন।
উল্লেখ্য, একুশে প্রদকপ্রাপ্ত বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ প্রগতিশীল সাংস্কৃতিক সংগঠন উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী প্রতিবছর জাতীয় গণসংগীত প্রতিযোগিতা ও উৎসবের আয়োজন করে। -বিজ্ঞপ্তি

Sharing is caring!

Loading...
Open