তাহিরপুর সীমান্তে বিপুল পরিমাণ বিস্ফোরক ও মদের চালানসহ অস্ত্র ব্যবসায়ী আটক

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি:: সুনামগঞ্জের তাহিরপুর সীমান্তে বিপুল পরিমাণ বিস্ফোরক ও ভারতীয় মদের চালানসহ আবুল কাশেম (২৮) নামের এক অস্ত্র ব্যবসায়ীকে আটক করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)।

গত শুক্রবার (১৫ই ফেব্রুয়ারি) সন্ধা সাড়ে ৭টায় বিস্ফোরক ও মদসহ ওই আসামিকে তাহিরপুর থানায় সোপর্দ করেছে বিজিবি। কাশেম উপজেলার বড়দল উওর ইউনিয়নের সীমান্তবর্তী রজনী লাইন গ্রামের মজিবুর রহমানের ছেলে।

বিজিবি সূত্রে জানা যায়, তাহিরপুরের টেকেরঘাট কোম্পানি হেডকোয়ার্টারের হাবিলদার নাজমুল হকের নেতৃত্বে বিজিবির একটি টহল দল শুক্রবার সন্ধা সাড়ে ৭টার দিকে সীমান্তের ওপার থেকে ফেরার পথে ৪০০ গজ বাংলাদেশ অভ্যান্তরে আবুল কাশেমকে আটক করে। পরবর্তীতে তার সঙ্গে থাকা ব্যাগ ও কার্টন তল্লাশি করে বিজিবি উচ্চক্ষমতাসম্পন্ন ৪৪ পিস ডেটোনেটর, ফিউজ, ৬২ পিস ক্যালভেক্স পাওয়ার জেল ও ১৫ বোতল ভারতীয় অফিসার্স চয়েজ মদ জব্দ করে। আটকের পর রাতেই আসামিকে তাহিরপুর থানায় সোপর্দ করার হয়। পরে বিজিবির পক্ষ থেকে অস্ত্র ও মাদকদ্রব্যের সংশি¬ষ্ট ধারায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে ২৮-বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়ন বিজিবির সুনামগঞ্জের অধিনায়ক লে. কর্নেল মাকসুদুল আলম বলেন, বিস্ফোরকদ্রব্য ও মাদকের চালানসহ অস্ত্রকারবারি আটকের বিষয়টি পুলিশের পাশাপাশি রাষ্ট্রীয় গোয়েন্দা সংস্থাকেও অবহিত করা হয়েছে। আশা করি, আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদে বিস্তারিত তথ্য জানা যাবে।

তাহিরপুর থানার ওসি শ্রী নন্দন কান্তি ধর বলেন, আসামিকে পুলিশ হেফাজতে নেয়ার পর প্রাথমিকভাবে জিজ্ঞাসাবাদে রাতে অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে, এ ধরনের বিস্ফোরক ব্যবসা ও সরবরাহের সঙ্গে আরও কে কে জড়িত রয়েছে, তা জানার জন্য পুলিশি চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

সুনামগঞ্জ পুলিশ সুপার মো. বরকতুল্লাহ খান বলেন, বিস্ফোরক আটকের বিষয়টি পুলিশ গুরুত্বের সঙ্গে খতিয়ে দেখছে, সেই সঙ্গে আদালতে আসামিকে সোপর্দ করার পর পুলিশ তাকে রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদের আবেদন জানাবে।

Sharing is caring!

Loading...
Open