ড.জয়া সেনগুপ্তাকে মন্ত্রীপরিষদে দেখতে চায় হাওরবাসী

দিরাই প্রতিনিধি :: জাতীয় নেতা ও প্রখ্যাত পার্লামেন্টারিয়ান প্রয়াত সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের পত্মী ড. জয়া সেনগুপ্তা এমপিকে মন্ত্রীপরিষদে দেখতে চায় দিরাই-শাল্লা উপজেলার হাওরবাসী।

হাওরবাসি জানান প্রয়াত সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের অসমাপ্ত কাজের বাস্তবায়ন ও হাওরাঞ্চলের উন্নয়ন অগ্রগতি ত্বরান্বিত করতে সৎ ও পরিচ্ছন্ন ব্যাক্তিত্ব এলাকায় ক্লীন ইমেজের নেতা হিসিবে পরিচিত ড. জয়া সেনের বিকল্প নেই বলে জানিয়েছেন হাওর অঞ্চলের মানুষ। তাই জয়া সেনকে আমরা মন্ত্রী হিসেবে দেখতে চাই। অতিতের সকল রেকর্ড ভঙ্গ করে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ১ লাখ ২৪ হাজার ১৭ ভোট পেয়ে প্রথমবারের মত এ আসন থেকে ড. জয়া সেনগুপ্তা নির্বাচিত হয়েছেন।

স্থানীয়রা জানান, সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের মৃত্যুর পর উপ নির্বাচনে ড. জয়া সেন এমপি নির্বাচিত হওয়ার পর দলগুছাতে অনেকটা হিমশিম খেলেও ড. জয়া সেনগুপ্তা এসবকে চ্যালেঞ্জ নিয়ে এলাকার উন্নয়ন অগ্রগতির কাজে মনো নিবেশ করেন। এলাকায় ২০১৭ সালের ভয়াবহ দুর্যোগ মোকাবেলায় ড. জয়া সেন বলিষ্ঠ ভুমিকা রাখেন। এরপর থেকে দিরাই-শাল্লার সাধারন মানুষের আস্থা বেড়ে যায় শিক্ষানুরাগী, সৎ পরিচ্ছন্ন ব্যাক্তিত্ব ড.জয়া সেনের উপর।

ভাটিবাংলা মহিলা সমিতির সভাপতি নার্গিস সুলতানা বুবলি ও সাধারণ সম্পাদক শিল্পী রানী চৌধুরীসহ অনেক নারী সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ হাওরপাড়ের নারীরা জানান, ড. জয়া সেনের মত একজন উচ্চ শিক্ষিত,সৎ ও পরিচ্ছন্ন নারীকে এমপি হিসেবে পেয়ে আমাদের প্রত্যাশা আরো বেড়ে গেছে। সেই সাথে শিক্ষাসহ নানা দিক দিয়ে দেশের তুলনায় হাওরাঞ্চলের নারীরা অনেক পিছিয়ে রয়েছে, উনি মন্ত্রী হলে হাওরাঞ্চলে নারীদের বৈষম্যদুর হবে, কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হবে, হাওরাঞ্চলের নারীদের জীবনমান উন্নয়নে ড. জয়াসেনকে মন্ত্রী পরিষদে অন্তর্ভুক্ত করতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার কাছে আকুল আবেদন তাদের।

দলমত নির্বিশেষে একাধিক রাজনৈতিক সচেতন ব্যাক্তিরা জানান, দুর্নীতির বিরুদ্ধে সোচ্ছার ড. জয়া সেনগুপ্তা বিগত উপ নির্বাচনে এমপি নির্বাচিত হয়ে এলাকার উন্নয়নে ব্যাপক ভুমিকা রেখেছেন, এলকায় ক্লীন ইমেজ হিসেবে পরিচিত ড. জয়া সেন মন্ত্রী হলে হাওরবাসীর উন্নয়ন অগ্রগতি ত্বরান্বিত করে হাওরবাসির মুখে হাসি ফুটাতে সচেষ্ট হবেন।

জাতীয় যুব পুরস্কার প্রাপ্ত আত্মকর্মী মোহন চৌধুরী জানান, উনাকে আমি কাছে থেকে যতটুকু জানতে পেরেছি, উনি একজন পরিচ্ছন্ন রাজনীতিবিদ। এলাকার উন্নয়ন কাজ ছাড়া কিছুই চিন্তা করেন না। এলাকার বেকার যুবদের জন্য বেশকিছু কাজ হাতে নিয়েছেন, ড. জয়া সেনগুপ্তার অসাম্প্রদায়িক, সৎ ও পরিচ্ছন্ন রাজনৈতিক নেতৃত্বে বিশেষ করে হাওরপাড়ে নারী জাগরন ও যুব জাগরনের সৃষ্টি হয়েছে, আমরা হাওরবাসি উনাকে মন্ত্রী হিসেবে দেখতে চাই।

Sharing is caring!

Loading...
Open