সারার বদলে যাওয়া

সুরমা টাইমস ডেস্ক:: পলিসিস্টিক ওভারিয়ান সিনড্রোমে আক্রান্ত ছিলেন তিনি। যে কারণে তার ওজন হয়েছিল ৯৬ কেজি। অথচ তিনি এখন বলিউড কাঁপাচ্ছেন।

নিজের প্রথম ছবিতে অভিনয় দক্ষতা দিয়ে মন জয় করেছেন অসংখ্য দর্শকের। প্রশংসায় পঞ্চমুখ চিত্রসমালোচকরাও।

জ্বি, বলি অভিনেতা সাইফ আলি খান তনয়া সারা আলি খানের কথাই বলা হচ্ছে।

অথচ রুপালী পর্দায় পা রাখার আগে যিনি নায়িকা হবার মতো শারীরিক গড়ন ছিলনা যার।

সেই সারা অভিষেকেই বলিউড কাঁপাচ্ছেন। গত ৭ ডিসেম্বর মুক্তিপ্রাপ্ত তার কেদারনাথ ছবি।

এ ছবিতে সারার অভিনয় বলিমহলে ব্যাপক প্রশংসিত। বক্স অফিসে সারা ফেলেছে ছবিটি।

সম্প্রতি স্পটবয় ডটকমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে নবাগত সারা আলি খান জানান, বাবা সাইফ ও মা অমৃতার মতো তিনিও রুপালী পর্দায় ক্যারিয়ার গড়তে চেয়েছিলেন।

যুক্তরাষ্ট্রের কলাম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সময় অভিনয় জগতে আসার স্বপ্ন দেখতেন তিনি।

কিন্তু নিজের মুটিয়ে যাওয়া দেহের দিকে তাকিয়ে সে স্বপ্ন নিমিষেই মুছে যেত তার। তবে মা অমৃতাকে সে কথা জানালেন, সঙ্গেসঙ্গে সারাকে ওজন কমানোর পরামর্শ দেন তিনি।

স্বপ্ন পূরণে শুরু হয় সারা অধ্যাবসায়। সপ্তাহের সাত দিনই জিমে কঠোর বেয়াম করতে থাকেন সারা।

পিৎজা খেতে খুব ভালোবাসেন সারা। সে ভালোবাসাকেও বিসর্জন দেন তিনি।

এভাবে মাত্র দেড় বছরে ওজন ৩০ কেজি কমিয়ে ৬০ কেজির ছিপছিপে শারীরিক গড়ন নিয়ে আসেন সারা। নিজেকে ফিট করে নেন বলিউড সিনেমার জন্য।

সারা বলেন, ‘নিয়মমাফিক জীবনযাপন আর বেশ কিছুটা ওয়ার্কআউট। এই সবকিছুর জন্যই আমি তাড়াতাড়ি রোগা হতে পেরেছি।’

নিজের আমুল পরিবর্তন কতটা হয়েছে সে সম্পর্কে সারা জানান, বিমানবন্দরে মা অমৃতা তাকে দেখে চিনতেই পারেন নি যে এটা তার কন্যা।

সারা বলেন, আমাকে নয় আমার স্যুটকেস দেখে মা আমাকে চিনতে পেরেছিলেন সেদিন।

প্রসঙ্গত, কেদারনাথের পর মুক্তির অপেক্ষায় সারা অভিনীত দ্বিতীয় সিনেমা ‘সিম্বা’। সে ছবি দেখতে মুখিয়ে আছেন সিনেপ্রেমীরা।

‘সিম্বা’ ছবিতে সদ্য বিবাহিত রণবীর সিংয়ের বিপরীতে সারাকে দেখা যাবে। আগামী ২৮ ডিসেম্বর সিনেমাটি মুক্তি পাবে বলে জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো।

এ ছবিও ব্যবসা সফল হবে বলে আশাবাদি সারা আলি খান।

Sharing is caring!

Loading...
Open