নগরীতে ছাত্রলীগের দুগ্রুপের সংঘর্ষ


সুরমা টাইমস ডেস্ক :: সিলেট নগরীর ধোপাদিঘীর পাড় এলাকায় টিলাগড়স্থ রঞ্জিত গ্রুপ ও মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি রাহাত গ্রুপের অনুসারিদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

বৃহস্পতিবার (১৩ ডিসেম্বর) রাত সাড়ে ৯টার দিকে এ ঘটনাটি ঘটে ধোপাদিঘীর পাড় এলাকার আওয়ামী লীগের নির্বাচনি কার্যালয়ের সামনে।

সূত্র জানায়, আওয়ামী লীগের নির্বাচনি কার্যালয়ে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদেরকে নিয়ে বৈঠক চলছিলো। এসময় রাহাত গ্রুপের একজন কর্মী টিলাগড়স্থ রঞ্জিত গ্রুপের এক কর্মীর মোটরসাইকেল নিয়ে পালিয়ে যাচ্ছিল। টিলাগড় গ্রুপের ছাত্রলীগের কর্মীরা তাকে ধরে মারধর শুরু করে। এক পর্যায়ে ভেতর থেকে রাহাতসহ তার অনুসারিরা বেরিয়ে এলে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এসময় টিলাগড় গ্রুপের নেতাকর্মীরা ধাওয়া করে রাহাত গ্রুপকে।

খবর পেয়ে রঞ্জিত গ্রুপের সেচ্ছাসেবকলীগ নেতা মিঠু ও কাউন্সিলর ইলিয়াছুর রহমান ঘটনাস্থলে গিয়ে উভয় পক্ষের নেতাকর্মীদেরকে শান্ত করেন। বর্তমানে ঘটনাটি মীমাংসা করার জন্য বৈঠক চলছে।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত থাকা আওয়ামী লীগের এক নেতা জানান, আওয়ামী লীগের নির্বাচনি কার্যালয়ে ছাত্রলীগের বৈঠক চলছিল। এসময় বাহিরে থাকা টিলাগড়ের রঞ্জিত গ্রুপের এক কর্মীর একটি মোটরসাইকেল নিয়ে পালিয়ে যাচ্ছিলেন মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি রাহাত গ্রুপের একজন কর্মী। এসময় টিলাগড়স্থ রঞ্জিত গ্রুপের অনুসারি মোটরসাইকেলের মালিক তার মোটরসাইকেল যথাস্থানে না পেয়ে খোঁজ করতে থাকেন। এক পর্যায়ে তিনি তার মোটরসাইকেলস্থ তাকে আটক করেন। এরপর উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়।

সিলেট মহানগর পুলিশের কোতোয়ালি থানার ওসি সেলিম মিঞা জানান, ধোপাদিঘীর পাড় এলাকায় আওয়ামী লীগের নির্বাচনি কার্যালয়ের সামনে ছাত্রলীগের দুগ্রুপের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও মারমারির ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে নিয়ে আসে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। কি কারণে এ ঘটনা ঘটেছি এমন প্রশ্নে ওসি জানান, যতটুকু জেনেছি একজনের মোটরসাইকেল অন্যজন নিয়ে যাওয়ার সময় এ ঘটনা ঘটেছে। তবে পুলিশ পুরো বিষয়টি খতিয়ে দেখছে এখানে অন্য কোন কারণ আছে কিনা।

Sharing is caring!

Loading...
Open