বেগম খালেদা জিয়ার বাৎসরিক আয় কত?


সুরমা টাইমস ডেস্ক : বিএনপির চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার বাৎসরিক আয় ১ কোটি ৫২ লাখ ৪১ হাজার ১২৭ টাকা। সে হিসেবে তার মাসিক আয় ১২ লাখ ৭০ হাজার ৯৩টাকা ৯২ পয়সা। তিনি বাড়ি/অ্যাপার্টমেন্ট/দোকান বা অন্যান্য ভাড়া, শেয়ার, সঞ্চয়পত্র ব্যাংকে আমানত থেকে এ আয় করে থাকেন।

তার সম্পত্তির পরিমান ৫৬ লাখ ৮৭ হাজার ৬০০ টাকা।

নগদ, যানবাহন, স্বর্ণ, ইলেকট্রনিক সামগ্রী, আসবাব পত্র, অকৃষি জমির মূল্য হিসেবে তিনি তার হলফ নামায় এ মূল্যের সম্পদ দেখিয়েছেন।। এছাড়া অর্জনকালীন ১০০ টাকা মূল্যে গুলশানে একটি বাড়ি আর ৫ টাকা মূল্যের ক্যান্টমেন্টের বাড়িও সম্পদের তালিকায় দেখিয়েছেন। তবে ক্যান্টমেন্টের বাড়ি দখলে নেই বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

বেগম খালেদা জিয়ার ঋণও রয়েছে ১ কোটি ৫৮ লাখ টাকার।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে নির্বাচন কমিশনে (ইসি) জমা দেওয়া হলফনামা থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

যা আছে খালেদা জিয়ার হলফনামায়
বেগম খালেদা জিয়া তার হলফনামায় লিখেছেন— স্বামীর নাম শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান বীর উত্তম, মাতার নাম তৈয়বা মজুমদার। ঠিকানায় লিখেছেন বাড়ী নম্বর ১, রোড নম্বর ৭৯, গুলশান-২ (বর্তমান অবস্থান কেন্দ্রীয় কারাগার, নাজিমুদ্দিন রোড ঢাকা)।

শিক্ষাগত যোগ্যতার ঘরে তিনি লিখেছেন-স্বশিক্ষিত।
মামলার বিবরণীতে উল্লেখ করেছেন— তার বিরুদ্ধে ৩৪টি মামলা দায়ের হয়েছিল। এর মধ্যে ৭টি মামলা বিচারাধীন। চারটি মামলা পেন্ডিং আর অন্যগুলো স্থগিত রয়েছে।

পেশার বিবরণীতে লিখেছেন— বাংলাদেশ জাতীয়বাদী দল- বিএনপির সাংগঠনিক কার্যাবলী পরিচালনা করা।
বেগম খালেদা জিয়া বছরে বাড়ি/অ্যাপার্টমেন্ট/দোকান বা অন্যান্য ভাড়া থেকে আয় করেন ৬৭ লাখ ৩১ হাজার ৩১৪টাকা। শেয়ার, সঞ্চয়পত্র ব্যাংকে আমানত থেকে আয় ৮৫লাখ ৯ হাজার ৮১৩টাকা। তার ওপর নির্ভরশীলদেরও আয় প্রজোন্য নয় বলে উল্লেখ করেছেন। বছরে তার মোট আয় ১ কোটি ৫২ লাখ ৪১ হাজার ১২৭ টাকা। মাসে তার আয় ১২ লাখ ৭০ হাজার ৯৩টাকা ৯২ পয়সা।

নগদ হাতে আছে ৫০ হাজার ৩শ টাকা। যানবাহন হিসেবে ৪৮ লাখ ৬৫ হাজার টাকার দু’টি টয়োটা জিপ রয়েছে। সোনা আছে ৫০ তোলা (জহুরতসহ)। এছাড়া ৫লাখ টাকার ইলেকট্রনিক সামগ্রী এবং ২লাখ ৬০ হাজার টাকার আসবাব রয়েছে।

অস্থাবর সম্পদের মধ্যে আছে ১২ হাজার ৩শ টাকা মূল্যর ৮ শতাংশ অকৃষি জমি। অর্জনকালীন ১০০ টাকা মূল্যে গুলশানে একটি বাড়ি আছে। আর ৫ টাকা মূল্যের ক্যান্টমেন্টের বাড়ি দখলে নেই।

ব্যাংকে তার বিরুদ্ধে কোনো ঋণ নেই। তবে বাড়ি ভাড়া বাবাদ ১ কোটি ৫৮ লাখ টাকা ঋণ রয়েছে তার।

Sharing is caring!

Loading...
Open