পুলিশ-বিএনপি সংঘর্ষে নয়াপল্টন রণক্ষেত্র


সুরমা টাইমস ডেস্ক ::বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে পুলিশের সঙ্গে বিএনপির নেতাকর্মীর সংঘর্ষ চলছে। এ সময় পুলিশকে টিয়ারশেল নিক্ষেপ করতে দেখা গেছে। এ সময় বিএনপি নেতাকর্মীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করে। ককটেল বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ গুলি ছুঁড়ছে। বর্তমানে সেখানে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া চলছে।

আজ বুধবার (১৪ নভেম্বর) দুপুরে এ ঘটনা ঘটে। এদিকে, বিএনপির নেতাকর্মীরা পুলিশের গাড়িসহ বেশ কয়েকটি গাড়ি ভাংচুর করেছে। নয়াপল্টনে গাড়ি চলাচল বন্ধ রয়েছে। এ সময় বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা পুলিশের একটি গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বেলা ১টার দিকে বিএনপি নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ বাধে। এ সময় পুলিশ বিএনপি নেতাকর্মীদের লক্ষ্য করে টিয়ার গ্যাস ছোড়ে। আর বিএনপির নেতাকর্মী পুলিশকে লক্ষ্য করে ছোড়ে ইটপাটকেল।

এ সময় কয়েকজন আহত হন। আহতদের একজনকে আঞ্জুমানে মফিদুলের গাড়িতে করে হাসপাতালের দিকে নিয়ে যেতে দেখা গেছে।

উল্লেখ্য, বিএনপি একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে সোমবার (১২ নভেম্বর) থেকে মনোনয়নপত্র বিক্রি শুরু করেছে। গত দুদিন মনোনয়নপত্র নিতে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের উপচে পড়া ভিড় ছিল। এতে করে বিএনপি অফিসের সামনে ও তার আশপাশের এলাকায় যানচলাচল বন্ধ হয়ে যায়। তাই আজ বুধবার (১৪ নভেম্বর) যান চলাচল স্বাভাবিক রাখতেই সকাল থেকেই দেখা যায় পুলিশের ব্যারিকেড।

ব্যারিকেড দিয়ে যান চলাচলের সুযোগ করে দিচ্ছে বলে দাবি পুলিশের।

সরেজমিন দেখা যায়, সকালে নেতাকর্মীদের আসার আগে থেকেই পুলিশ রাস্তায় ব্যারিকেড দেয়। নেতাকর্মীদের ব্যারিকেডের ভিতরে থাকতে বলা হচ্ছে। খন্ড খন্ড মিছিলকে বিএনপি অফিসের ভিতর ও তার সামনের অল্প স্থানে থাকতে বলা হচ্ছে। এতে করে বিপাকে পড়েছে মনোনয়নপত্র কিনতে আসা নেতাকর্মীরা।

পাবনা থেকে মনোনয়নপত্র কিনতে আসা বিএনপির কর্মী শাখাওয়াত হোসেন বিডি২৪লাইভকে বলেন, ‘অসংখ্য নেতাকর্মী আসায় নেতাকর্মীদের অফিসে উপচে পড়া ভিড়। অফিসের ভিতরে দাঁড়ানো যাচ্ছে না। এজন্য একটু বাইরে এসে দাঁড়িয়েছিলাম। কিন্তু সেখানেও পুলিশের বাধা। সামনেও নেতাকর্মীদের ভিড় থাকায় এখানেও দাঁড়ানো যাচ্ছে না।’

তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগের মনোনয়নপত্র বিক্রির সময় পুরো ধানমন্ডির রাস্তা বন্ধ করে দিয়েছিল। অথচ আমাদের রাস্তায় দাঁড়াতেই দিচ্ছে না। তাহলে কিভাবে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড হলো?’ বলেন, মনোনয়নপত্র কিনতে আসা বিএনপির কর্মী শাখাওয়াত।

Sharing is caring!

Loading...
Open