দক্ষিণ সুরমায় যুবদল ক্যাডার কালা সুমন গ্রেফতারের পর হুমকি

সিলেটের দক্ষিণ সুরমায় তথ্য প্রযুক্তি আইনে মামলা ও গ্রেফতার নিয়ে যুবদল ও যুবলীগের মধ্যে থমথমে বিরাজ করছে। যে কোন সময় রক্তক্ষয়ী সংর্ঘষের আশংকা করছে এলাকাবাসী। এ ব্যাপারে যুবলীগ নেতা জাকারিয়া আহমদ তাপাদার জাকির ৩১ অক্টোবর দক্ষিণ সুরমা থানায় একটি সাধারণ ডায়রি করেন (নং- ১৫৩০)।

জানা গেছে, দক্ষিণ সুরমার মোল্লারগাঁওয়ের ওয়ারিছ আলীর পুত্র যুবদল ক্যাডার সুমন ওরফে কালা সুমন স¤প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্পর্কে কটুক্তি ও মানহানিকর পোস্ট দেয়। এ ঘটনায় সিলেটের জকিগঞ্জ উপজেলার ব্রাহ্মণগ্রাম কসকনকপুরের বাসিন্দা যুবলীগ নেতা জাকারিয়া আহমদ তাপাদার জাকির ঢাকাস্থ পল্টন থানায় তথ্য প্রযুক্তি আইনে একটি মামলা করেন। মামলা নং ৪৬(৮)১০।

এ মামলার প্রধান আসামী যুবদল ক্যাডার সুমন ওরফে কালা সুমনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। কালা সুমন আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়। মামলা ও কালা সুমন গ্রেফতার এবং স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেওয়ায় স্থানীয় যুবদল ক্যাডার কোহিনুর আহমদের নেতৃত্বে এলাকার যুবদল সন্ত্রাসীরা মামলার বাদী যুবলীগ নেতা জাকারিয়া আহমদ তাপাদার জাকিরসহ যুবলীগ, ছাত্রলীগ এবং আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাদের হত্যা, অপরহণসহ নানা হুমকি দিচ্ছে। এ সংক্রান্ত একটি ভিডিও ফুটেজ এস.এম.পির একজন পদস্থ কর্মকর্তার কার্যালয়ে ইতোমধ্যে জমা করা হয়েছে।

এলাকাবাসী শান্তি ও শৃঙ্খলা রক্ষাসহ জননিরাপত্তা বিধানে সন্ত্রাসী কোহিনুর, কালা সুমন ও তাদের সহযোগী সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধমূলক আইনে ব্যবস্থা গ্রহণের জোর দাবি জানিয়েছেন।

মামলার বাদী যুবলীগ নেতা জাকারিয়া আহমদ তাপাদার জাকির অভিযোগ করেন সুমন গ্রেফতার ও তার স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দির পর থেকেই এলাকার যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ হুমকির সম্মুখীন হয়ে পড়েছেন। যে কোন সময় তারা যুবদল সন্ত্রাসীদের হামলা ও হতাহতের শিকার হতে পারেন।

দক্ষিণ সুরমা থানার অফিসার ইনচার্জ খায়রুল ফজল থানায় সাধারণ ডায়রির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।–বিজ্ঞপ্তি।

Sharing is caring!

Loading...
Open