ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশ: বিএনপি ছাড়া মাঠে নেই কেউ


সুরমা টাইমস ডেস্ক :: অনেক নাটকীয়তার পর ২৪ অক্টোবর সিলেটে সমাবেশর অনুমতি পেয়েছে সরকারবিরোধী নতুন জোট জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। ২৪ অক্টোবর বিকেলে নগরীর রেজিস্টারি মাঠে সমাবেশ করবে ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বাধীন এই ঐক্যফ্রন্ট। রোববার বিকেলে সমাবেশের পুলিশি অনুমতিও মিলেছে।

এই সমাবেশের মধ্য দিয়েই নিজেদের যাত্রা আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু করবে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। সমাবেশকে সফল করতে সিলেটে বিএনপির পক্ষ থেকে কর্মতৎপরতা শুরু হয়েছে। তবে ছাড়া ঐক্যের অন্য শরিকরা এখন পর্যন্ত নীরব রয়েছে। সিলেটে এ পর্যন্ত তাদের কোনো তৎপরতা লক্ষ্য করা যায়নি।
সম্প্রতি সিলেট সফরকালে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতও বলেছেন, ‘অস্তিত্বহীন কিছু ব্যক্তি ঐক্যফ্রন্ট করেছেন। একমাত্র বিএনপি ছাড়া তাদের কারোরই কোনো অস্তিত্ব নেই। নির্বাচনে তারা কোনো প্রভাব ফেলতে পারবেন না।

জানা যায়, ২৪ অক্টোবরের সিলেটে জনসভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন। প্রধান বক্তা বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এতে সভাপতিত্ব করবেন সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ও বিএনপি নেতা আরিফুল হক চৌধুরী।

এছাড়াও আ স ম আব্দুর রব, ড. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন, সুলতান মুহাম্মদ মনসুর, মাহমুদুর রহমান মান্নাসহ ঐক্যফ্রন্টের প্রায় সব শীর্ষ নেতাই উপস্থিত থাকবেন।
তবে এই জনসভাকে ঘিরে সিলেটে এখন পর্যন্ত বিএনপি ছাড়া ঐক্যফ্রন্ট ভুক্ত কোনো দলের তৎপরতা দেখা যায়নি। তবে ঐক্যের শরীক দলগুলোর নেতারা জানিয়েছেন, তাদের দাবির প্রতি জনসমর্থন আছে। তাই ২৪ তারিখের জনসমাবেশ জনসমুদ্রে পরিণত হবে। যদিও আওয়ামী লীগের নেতাদের দাবি, সিলেটের রাজনীতিতে প্রভাব ফেলার সক্ষমতা নেই নতুন এই ফ্রন্টের।

২৪ অক্টোবরের সমাবেশ সফল করতে ইতোমধ্যে প্রস্তুতি সভা করেছে মহানগর বিএনপি। এই সভা থেকে ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশ সফল করতে প্রত্যেক নেতাদের আহ্বান জানানো হয়েছে। ঐক্যফ্রন্টের অন্য দলগুলোর দৃশ্যমান কোনো তৎপরতা না থাকলেও তারা সক্রিয় রয়েছেন বলে জানিয়েছেন দলগুলোর নেতারা।
নাগরিক ঐক্যের সিলেট জেলা শাখার সিনিয়র সদস্য এডভোকেট দেওয়ান মিনহাজ গাজী বলেন, ২৪ অক্টোবরের সমাবেশ সফল করতে আমরা প্রস্তুতি নিচ্ছি। রোববার মাত্র অনুমতি পেয়েছি। এখন আমাদের তৎপরতা আরও দৃশ্যমান হবে।

গণফোরামের সিলেট জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট নিলেন্দু দেব বলেন, বিএনপি বড় দল হওয়ায় তাদের কর্মকাণ্ড সহজেই সবার চোখে পড়ে। তবে আমরাও ওই সমাবেশ ও কেন্দ্রীয় নেতাদের সিলেট সফর সফল করতে ব্যাপক প্রস্তুতি নিচ্ছি। এই সমাবেশ থেকেই একটি গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের দাবিকে আরও জোরালো করতে চাই।

সিলেটের বিএনপি নেতারা জানান, ঐক্যফ্রন্টের ৭ দফা দাবি ও ১১ দফা লক্ষ্য সিলেটে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। ২৪ অক্টোবরের সমাবেশ থেকে কেন্দ্রীয় নেতারা নির্বাচনী দিকনির্দেশনা প্রদান করবেন বলেও মনে করেন তারা।

সিলেট জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সিলেটের সমন্বয়ক আলী আহমদ বলেন, জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট মানুষের মুক্তির বার্তা নিয়ে এসেছে। গণতন্ত্র উদ্ধারের দাবি নিয়ে এসেছে। তাই সিলেটের সাধারণ মানুষের মধ্যে এই ঐক্য ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। সাধারণ মানুষই ২৪ অক্টোবরের সমাবেশকে সফল করে তুলবে বলে মনে করেন তিনি।
অন্যদিকে আওয়ামী লীগ নেতারা মনে করেন, সিলেটে ভোটের মাঠে ঐক্যফ্রন্ট কোনো প্রভাব ফেলতে পারবে না।

সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বদর উদ্দিন আহমদ কামরান বলেন, এই ঐক্যজোটে জনতার সম্পৃক্ততা কম। ঐক্যের বেশিরভাগ নেতারই কোনো জনভিত্তি নেই। তাদের দলগুলোরও কোনো কার্যক্রম নেই। ফলে এই ঐক্য সিলেটের মানুষের মধ্যে কোনো প্রভাব ফেলতে পারবে না।
নতুন এই ফ্রন্টের সিলেট মিশনকে এখনো পর্যবেক্ষণে রেখেছে স্থানীয় আওয়ামী লীগ। তবে সরকার বিরোধী কর্মসূচির নামে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টা করলে তা মোকাবেলায়ও প্রস্তুতি রয়েছে বলে জানিয়েছেন দলটির নেতারা।

Sharing is caring!

Loading...
Open