মানুষের জীবন নিয়ে একেমন ভয়ঙ্কর প্রতারণা…….?

সুরমা টাইমস ডেস্ক::     আমি তামিম। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের একাউন্টস অফিসার। সুমনার চিকিৎসার জন্য আমার বস শামীম আহমদ মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেছেন। চিকিৎসার জন্য সুমনা ৫-৭ লাখ টাকা পাবেন। তবে এর আগে আপনাকে নির্দিষ্ট আবেদন ফরম কিনতে হবে। এ জন্য ২ হাজার ৪০ টাকা বিকাশে পাঠিয়ে দিন।’

মূলত কথাগুলো একজন প্রতারকের। সুমনা নামে একজন মেধাবী কলেজ ছাত্রীর চিকিৎসা সহায়তার আবেদন বিভিন্ন গণমাধ্যমে আসার পর এভাবেই ফোন করে মিথ্যা আশ্বাস ও কৌশলে প্রতারণার ফাঁদ পাতে সে।

জানা গেছে, সিলেট সরকারি মহিলা কলেজের মাস্টার্সের (বাংলা) ছাত্রী সুমনা আক্তার। তাদের বাসা সিলেট নগরীর ১২ নং ওয়ার্ডের কুয়ারপার ইঙ্গুলাল রোডে। তার দুটি কিডনিই বিকল হয়ে গেছে। প্রতি সপ্তাহে দুটি ডায়ালাইসিস দেয়া লাগে। অসচ্ছল পরিবারটি চিকিৎসার ব্যয়ভার বহন করতে গিয়ে সব হারিয়ে ফেলেছে। এখন সুমনার বাবা তার মেয়েকে একটি কিডনি দিতে চান। তবে এই কিডনি প্রতিস্থাপনে প্রয়োজন ৩০ লাখ টাকা। এ কারণে সমাজের হৃদয়বানদের সাহায্য চেয়েছেন সুমনার পরিবার।

এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করে বিভিন্ন গণমাধ্যম। সাহায্য পাঠাতে সুমনা আক্তার, সাউথইস্ট ব্যাংক লিমিটেড লালদিঘীরপার শাখায় একটি হিসাব (০০১২৭০০০০০১০৯) খুলেছে। এছাড়া উল্লেখ করা হয় কেউ চাইলে সরাসরি সাহায্য করতে পারবেন বিকাশ (০১৭১২-০৭৯৫৬৮) নাম্বারে।

সুমনার সাহায্য সংক্রান্ত প্রতিবেদন গণমাধ্যমে প্রকাশের পর ফোন আসছে বিভিন্নজনের কাছ থেকে। অনেকেই সমবেদনা জানাচ্ছেন। কেউ কেউ সাধ্যমতো সাহায্যও করছেন। এরবাইরেও একটি চক্র টাকা হাতিয়ে নিতে প্রতারণার নানা ফাঁদ পাতছে। বিষয়টি নিয়ে ব্যথিত সুমনার পরিবার।

জানা গেছে, গত ২রা অক্টোবর সকাল ৬টা ৪২ মিনিটে ০১৯৭১-২৫৫৩০৫ নাম্বার থেকে একটি ফোন আসে গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদনে দেয়া মোবাইল নাম্বারে। নিজেকে তামিম পরিচয় দিয়ে জানায়, সে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে বলছে। সুমনার জন্য একটি ফান্ডের ব্যবস্থা করে দেয়া যাবে। এ বিষয়ে তার বস শামীম আহমদ (সহকারী সচিব) প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেছেন। সর্বোচ্চ ৫-৭ লাখ টাকা দেয়া হবে। তামিম ০১৬৩০৭৬২৫৬০ এই মোবাইল নাম্বার দিয়ে শামীম আহমদের সঙ্গে কথা বলার জন্য বলেন। শামীম আহমদ ফোন ধরে বলেন, ২রা অক্টোবর অফিস চলাকালীন সময়ের মধ্যে তাদের রোগীকে নিয়ে আসতে হবে। অন্যথা বড় সহায্যের সুযোগটি হাতছাড়া হয়ে যাবে।
পরে তামিম নিজ থেকেই ফোন দিয়ে আবেদন ফরম বাবদ ২ হাজার ৪০ টাকা দেয়ার কথা জানান। তখন সন্দেহ হয় এরা প্রতারকচক্র। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে যোগাযোগ করলে জানা যায়, বিষয়টি সম্পূর্ণ প্রতারক চক্রের কাজ। সেখান থেকে এদের বিরুদ্ধে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর দ্বারস্থ হতে বলা হয়।

সুমনার মামা রাসেল আহমদ আনিস জানান, দুপুর ২টা ১০ মিনিটে (০১৯৭৭৩৩১৩৩৫) এই নাম্বার থেকে অনুরূপ আরেকটি ফোন আসে। একই ভাবে সাহায্যের জন্য রেজিস্ট্রেশন করা বাবদ বিকাশে ২ হাজার ৮শ টাকা পাঠাতে বলে।

রাসেল আহমদ আনিস বলেন,‘আমরা বিষয়গুলো মৌখিকভাবে মেট্রোপলিটন পুলিশকে জানিয়েছি। সুমনার চিকিৎসার জন্য দৌড়াচ্ছি, নতুন ঝামেলায় পড়তে চাই না। মৃত্যু পথযাত্রীকে নিয়ে প্রতারণার বিচার আল্লাহর উপর ছেড়ে দিয়েছি।’

এব্যাপারে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (মিডিয়া) মুহম্মদ আব্দুল ওয়াহাব জানান, তারা বিষয়টি জেনেছেন।

Sharing is caring!

Loading...
Open