বিশ্বনাথে চিকিৎসকের চেম্বারে খতনা দিতে এসে শিশুর মৃত্যু

বিশ্বনাথ প্রতিনিধি:: সিলেটের বিশ্বনাথে খতনা দিতে এসে চিকিৎসকের তানভীর আহমদ নামের ২০মাস বয়সী এক শিশুর মৃত্যু হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। নিহত শিশু দক্ষিণ সুরমা উপজেলার সিলাম ইউনিয়নের টিলা মামনপুর গ্রামের মর্তুজ আলীর পুত্র। বৃহস্পতিবার (২৭ সেপ্টেম্বর) বিকেলে বিশ্বনাথ উপজেলার সদরের কলেজ রোডস্থ রহিম মেডিকেল সেন্টারে এঘটনাটি ঘটে।
জানা গেছে, প্রস্রাবে সমস‌্যা থাকায় খতনা দিতে শিশু তানভীর আহমদকে নিয়ে তার মা বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টায় বিশ্বনাথে রহিম মেডিকেল সেন্টারে আসেন। এসময় রহিম মেডিকেল সেন্টারে স্বত্বাধিকারী প্যারামেডিক চিকিৎসক এম এ রহিম খতনা করতে তানভীর আহমদের পুরুষাঙ্গে এনেসথেসিয়া ইঞ্জেকশন দেওয়ার সাথে সাথে তার (তানভীর) খিঁচুনী উঠে যায় এবং মুখ দিয়ে ফেঁনা বের হতে থাকে। এরপর তানভীরের মা ও সাথে থাকা স্বজনেরা তাকে দ্রুত সিলেট নর্থ ইস্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তানভীরকে মৃত ঘোষণা করেন। তানভীরের মৃত্যু মেনে নিতে না পেরে স্বজনেরা তাকে নিয়ে ইবনে সিনা হাসপাতাল ও পার্কভিউ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানেও কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করে। এঘটনায় চিকিৎসক এম এ রহিমকে দায়ী করে নিহত শিশুর লাশ নিয়ে তার স্বজনেরা আজ রাত ১২টায় বিশ্বনাথ থানায় আসেন। এসময় থানা পুলিশ লাশের সুরতহাল করে মর্গে প্রেরণের প্রস্তুতি নিলে নিহতের স্বজনেরা ময়না তদন্ত ছাড়াই লাশ দাফন করতে চান বলে পুলিশকে জানান। রাত ১টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত শিশুটির লাশ নিয়ে তার স্বজনেরা থানায় অবস্থান করছেন বলে জানা যায়।
এব্যাপারে বিশ্বনাথ থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) শামসুদ্দোহা পিপিএম বলেন, অভিযোগের ভিত্তিতে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Sharing is caring!

Loading...
Open