সিলেটে নাশকতার প্রস্তুতিকালে : ৫ শিবির ক্যাডার গ্রেপ্তার

স্টাফ রিপোর্টার::
নাশকতার প্রস্তুতিকালে মেজরটিলার শ্যামলী আবাসিক এলাকার ১নং রোডস্থ ৩৭ নং বাসার মেস থেকে শিবিরের পাঁচ ক্যাডারকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে একটি মেস থেকে শাহপরান থানার এসআই প্রদীপ সরকারের নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার বুরাইয়া গ্রামের আলতাব আলীর ছেলে সিলেটের খাদিমপাড়া ইউপির ১নং ওয়ার্ড শিবিরের সাধারণ সম্পাদক গালিব আহমদ, একই উপজেলার হাসামপুর গ্রামের আব্দুল আজিজের ছেলে শিবিরের সদস্য আব্দুল জলিল, মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলা চান্দগাঁও গ্রামের আসাদ উদ্দিনের ছেলে শিবির সদস্য ময়েজ আহমদ সাজু, সিলেটের ফেঞ্জুগঞ্জ থানার দানারাম গ্রামের সিরাজুল ইসলামের ছেলে শিবিরের সাথী নজরুল ইসলাম সাব্বির, লক্ষীপুর জেলার আব্দুল কালামের ছেলে নাজমুল হোসেন। এসময় অন্যান্যরা পালিয়ে যায়।

গ্রেপ্তারকৃতরা শাহপরাণ (রহ:) থানাধীন শ্যামলী আবাসিক এলাকার ১নং রোডস্থ বাসা নং-৩৭ বাসার মেসে সরকারের বিরুদ্ধে গোপন ষড়যন্ত্র করে দেশের স্বাভাবিক আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটানোর এবং জনগণের মধ্যে ভীতি সৃষ্টির জন্য গোপন বৈঠকে মিলিত হয়েছিলো বলে জানা গেছে।

এসময় মেসে তল্লাশী করে জামাত-শিবিরের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত যুদ্ধাপরাধী গোলাম আযম, মতিউর রহমান নিজামী এবং খুররম জাহ্ মুরাদগংদের লেখা নাশকতার উদ্দেশ্যে জিহাদী চেতনায় উদ্বুদ্ধ বই, দলীয় সাংগঠনিক বই পত্র ইত্যাদি জব্দ করা হয়।

ধৃত আসামীরা সিলেটের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি সৃষ্টি করে বাংলাদেশের আভ্যন্তরীন আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি করে বাংলাদেশের নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে ক্ষতিগ্রস্থ করা, জননিরাপত্তা বিপন্ন বা ক্ষতিগ্রস্থ করা, বিভিন্ন সম্প্রদায় বা জনগনের মনে শত্রুতার মনোভাব সৃষ্টি করে উস্কানি প্রদান, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষণাবেক্ষণে হস্তক্ষেপ করার পরিকল্পনা করিতেছিল বলে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে পুলিশ জানিয়েছে।

শুক্রবার সকালে এসআই প্রদীপ সরকার বাদী হয়ে আসামীসহ পলাতক অজ্ঞাতনামা আসামীদের বিরুদ্ধে বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা দায়ের করেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন শাহপরাণ(রহ:) থানার অফিসার ইনচার্জ আখতার হোসেন।

Sharing is caring!

Loading...
Open