জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে সিলেট বিএনপি পন্থি ৬ পুলিশ কর্মকর্তার বদলী


সুরমা টাইমস ডেস্ক :: পুলিশ বিভাগে এখন বদলী আতঙ্ক বিরাজ করছে। গত কয়দিনে মহানগর পুলিশের ওসি পদে ৬ কর্মকর্তাকে বদলী করা হয়েছে। বদলীর তালিকায় অপেক্ষমান রয়েছেন আরো অনেক কর্মকর্তা।

বদলীকৃতদের মধ্যে রয়েছেন কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোশাররফ হোসেন, শাহপরাণ (রহ.) থানার আখতার হোসেন, ওসি (তদন্ত) গিয়াস উদ্দিন, এয়ারপোর্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা গৌসুল হোসেন, এসএমপির সদর দফতরে কর্মরত পরিদর্শক মো. মোরছালিন ও নগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) পরিদর্শক জিএম হামিদুর রহমান।

তাদের মধ্যে কোতোয়ালী তানার ওসি মোশাররফকে ট্যুরিস্ট পুলিশে, শাহপরাণ (রহঃ) থানার ওসি আখতার হোসেনকে ইন্ড্রাস্ট্রিয়াল পুলিশে, এয়ারপোর্ট থানার ওসি গৌসুল হোসেনকে টাঙ্গাইল, শাহপরাণ (রহঃ) থানার ওসি (তদন্ত) গিয়াস উদ্দিনকে নৌ পুলিশে এবং মোরছালিন ও হামিদুর রহমানকে পিবিআইতে বদলী করা হয়েছে।

সূত্র জানায়, সদ্য সমাপ্ত সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দলের মেয়র প্রার্থীর পরাজয় মহানগর পুলিশের কর্মকর্তার কর্মকান্ডকে প্রশ্নবিদ্ধ করার অভিযোগে আনা হয়। তাদের বিরুদ্ধে পরোক্ষভাবে বিএনপি প্রার্থীকে সহযোগীতার অভিযোগ ওঠে। এ কারণে তাদের বদলীর নির্দেশ দেওয়া হয়।
সূত্র জানায়, সিটি নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দলের পক্ষে ছিলেন এসব কর্মকর্তারা। ক্ষমতাসীন প্রার্থীর পক্ষে কর্ম তৎপরতা দেখাতে তারা বিএনপি নেতাকর্মীদের উপর মামলাও করেছেন। সেসব মামলায় জনপ্রিয়তা ক্ষমতাসীন প্রার্থীর বিপক্ষে চলে যায়। এ জন্য বিএনপি পন্থি অফিসার হিসাবে তকমা পেতে হয় অনেক কর্মকর্তাদের। যার দরুন শাস্তির খড়গ হিসেবে বদলী করা হয়েছে, এমনটি খোদ কর্মকর্তারাও স্বীকার করেন। আর এ কারনে আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে গুরুত্বপূর্ণ সিলেট-১ আসনে টার্গেট করে সেসব কর্মকর্তাদের বদলী করা হয় বলে, সুত্র নিশ্চিত করে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক নগর পুলিশের এক কর্মকর্তা জানান, ওসি মোশাররফ প্রথমে কোতোয়ালী থানার তদন্ত অফিসার ছিল, এর জালালাবাদ থানায়ও তদন্ত অফিসার পদে কাজ করে। এরপর এয়ারপোর্ট থানার ওসি হিসেবে যোগদানের পর কোতোয়ালীতে আবারও ওসি পদে যোগদান করেন। আর এখন বিএনপি প্রার্থীর পক্ষে কাজ করার অভিযোগে ট্যুরিস্ট পুলিশে বদলী করা হচ্ছে ওসি মোশাররফকে।

তিনি আরও জানান, শাহপরান ও কোতোয়ালী থানার ওসি বদলীর নির্দেশনা এসেছে। তবে অন্যদের আদেশ এখনও পৌছায়নি। খুব দ্রুতই তারা কর্মস্থল ত্যাগ করে নতুন কর্মস্থলে যোগদান করবেন।
এ ব্যাপারে সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (মিডিয়া) মুহম্মদ আবদুল ওয়াহাব বলেন, বদলীর বিষয়টি অভ্যন্তরীণ হতে পারে। এর বেশী কিছু জানেনা।
সুত্র:বাংলা নিউজ ২৪ ডটকম

Sharing is caring!

Loading...
Open