রোহিঙ্গা ক্যাম্পের স্বেচ্ছাসেবীকে গুলি করে হত্যা

সুরমা টাইমস ডেস্ক:: কক্সবাজারের টেকনাফের লেদা অনিবন্ধিত রোহিঙ্গা বস্তিতে স্থানীয় দুর্বৃত্তের গুলিতে মো. আবু ইয়াছের (২২) নামে রোহিঙ্গা ক্যাম্পের এক সেচ্ছাসেবীর নিহত হয়েছেন। শুক্রবার (৩১ আগস্ট) বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত আবু ইয়াছের হ্নীলা অনিবন্ধিত লেদা রোহিঙ্গা বস্তির এফ ব্লকের ১৫৬ নম্বর রুমের বাসিন্দা মো. ইসলাম মিয়ার ছেলে ও রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অপরাধ কর্ম রোধে আন্তর্জাতিক সংস্থা আইওএম’র সহায়তায় গঠিত স্বেচ্ছাসেবী নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্য।

স্থানীয় সূত্র জানায়, হ্নীলা অনিবন্ধিত লেদা রোহিঙ্গা বস্তির এফ ব্লকের মসজিদের সামনে দাঁড়িয়ে অন্যদের সঙ্গে কথা বলছিলেন মো. আবু ইয়াছের। এ সমন সময় স্থানীয় উত্তর আলীখালীর কালা চাঁন্দের ছেলে ছৈয়দ আলম (৩৫) ও রিদুয়ানের (৩২) নেতৃত্বে একদল দুর্বৃত্ত ঘটনাস্থলে এসে ইয়াছেরের বুকে বন্দুক ঠেকিয়ে গুলি করে চলে যায়। পরে উপস্থিত লোকজন রক্তাক্ত অবস্থায় ইয়াছেরকে দ্রুত স্থানীয় ক্যাম্প হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

স্থানীয় রোহিঙ্গা বস্তির চেয়ারম্যান আব্দুল মোতালেব জানান, বিগত মাস ছয়েক আগ থেকে ক্যাম্প ভিত্তিক মাদক চোরাচালান, সেবন ও বখাটেদের উৎপাত বেড়ে যায়। এটি নিয়ন্ত্রণে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও আইওএম’র সহায়তায় মাস দুয়েক আগে একটি স্বেচ্ছাসেবী বাহিনী গঠন করা হয়। যার সক্রিয় সদস্য হিসেবে ইয়াছের অপরাধ দমনে কঠোরভাবে সেচ্ছাসেবীর কাজ করে। তার দায়িত্ব পালনকে ভালোভাবে নিতে পারেনি মাদক চক্র। তারা ক্ষুব্ধ হয়ে শুক্রবার বিকেলে আকস্মিক ক্যাম্পে এসে বুকে বন্দুক ঠেকিয়ে ইয়াছেরকে গুলি করে চলে গেছে।

টেকনাফ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রনজিত কুমার বড়ুয়া জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল গিয়ে মরদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছে। হত্যাকারীরা শনাক্ত হয়েছে। তাদের ধরতে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।

Sharing is caring!

Loading...
Open