ময়লা ফেলার প্রতিবাদে বিয়ানীবাজারে সড়ক অবরোধ

বিয়ানীবাজার প্রতিনিধি ::         বিয়ানীবাজার-চন্দরপুর সড়কের পাশে বিয়ানীবাজার পৌরশহরের লাসাইতলা নামক এলাকায় ময়লা আবর্জনা ফেলার প্রতিবাদের সড়ক অবরোধ করেছেন বিক্ষুদ্ধ জনতা ও ভুক্তভোগীরা।

সোমবার দুপুরে লাসাইতলায় এই সড়ক অবরোধ করেন ভুক্তভোগীরা। ঘন্টাব্যাপী অবরোধে এসময় আটকা পড়ে শতশত যানবাহন।

অবরোধের খবর পেয়ে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান খাঁন ও বিয়ানীবাজার থানার  ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহজালাল মুন্সী অবরোধকারীদের সাথে কথা বললে, এক সপ্তাহের আশ্বাসে তারা অবরোধ তুলে নেন। এরপর স্বাভাবিক হয় যানবাহন চলাচল।

সড়ক অবরোধে মাথিউরা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সিহাব উদ্দিন, মাথিউরা ইউনিয়ন উন্নয়ন সংস্থা ইউকে’র প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি আনোয়ার হোসেন, যুক্তরাজ্য প্রবাসী কামাল হোসেন ও নূর উদ্দিন লোদী, লায়ন্স ক্লাব অব বিয়ানীবাজারের সাবেক সভাপতি লায়ন সোহেল আহমদ, ব্যবসায়ী লুৎফুর রহমান, নজরুল ইসলাম, সোহেল লোদী, ইফতেখার হোসেন, ইফতেখার হোসেন হানিফ, ব্যবসায়ী জসিম উদ্দিন ও আওলাদ হোসেন, ছাত্রনেতা আমান উদ্দিন, আজাদ জিসান, শরীফুল ইসলাম,জাবের আহমদ, স্বপন আহমদ, রেদওয়ান আহমদ, জামিল হোসেন, কামরুল ইসলাম, জাফর আহমদসহ পৌর এলাকার লাসাইতলা, মাথিউরা ও তিলপারা ইউনিয়নের নাগরিকবৃন্দসহ এই রাস্থা দিয়ে যাতায়াতকারী সাধারণ মানুষ অবরোধে অংশ নেন।

উল্লেখ্য, গত মে মাস থেকে পৌরশহরে বর্জ্য ফেলা হচ্ছে লাসাইতলার বিয়ানীবাজার-চন্দরপুর সড়কের পাশে। এ নিয়ে ভুক্তভোগীরা দফায় দফায় পৌরসভার দায়িত্বশীলদের বর্জ্য ফেলা বন্ধের দাবি জানান। গত ২৪ জুন বিয়ানীবাজার পৌরসভায় গিয়ে পৌর মেয়রের সাথে ৫০ জনের একটি প্রতিনিধি দল দেখা করে বর্জ্য ফেলা বন্ধ করার দাবি জানান।

এসময় পৌর মেয়র মোঃ আব্দুস শুকুর ভুক্তভোগী প্রতিনিধি দলকে বর্জ্য ফেলা বন্ধ করার আশ্বাস দেন। কিন্তু বর্জ্য ফেলার বিকল্প কোন জায়গা না থাকায় ওই জায়গাই বর্জ্য ফেলা হচ্ছে। তবে বিকল্প জায়গা পাওয়া মাত্রই তা অন্যত্র সরিয়ে নেয়া হবে বলে জানায় পৌর কর্তৃপক্ষ।

Sharing is caring!

Loading...
Open