ঈদুল আযহার বর্জ্য অপসারণে সিসিকের দুই হাজার কর্মী

নিজস্ব প্রতিবেক::     ঈদুল আযহায় বর্জ্য অপসারণ মাঠে থাকবে সিলেট সিটি করপোরেশন (সিসিক) বিপুল সংখ্যক কর্মী। সিটি করপোরেশনের নিয়মিত ৫৫৬ জন পরিচ্ছন্নতাকর্মী ছাড়াও ঈদের জন্য ১২৭৫ জন অতিরিক্ত কর্মী মাঠে কাজ করবে।

সব মিলিয়ে ১৯৩১ জনের বিপুল সংখ্যক পরিচ্ছন্নতাকর্মী নিয়ে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সিলেট মহানগরী থেকে কোরবানির বর্জ্য অপসারণ করার কথা জানিয়েছে সিলেট সিটি করপোরেশন।

সিটি করপোরেশনের কনজারভেন্সি কর্মকর্তা হানিফুর রহমান জানান, অন্যান্য বছরের মতো এবারো ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সব বর্জ্য অপসারণ করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। কোরবানির বর্জ্য ব্যবস্থাপনা নিয়ে ঈদের তিন দিন আগে ও ঈদের পরের তিন দিন নয়টি বিশেষ টিম কাজ করবে।

তিনি জানান, ৫০টি বর্জ্যবাহী ও ১০টি পানিবাহী ট্রাক এবং ৫টি এক্সেভেটর দিয়েই নগরীকে পরিচ্ছন্ন করার প্রস্তুতি নিয়েছে করপোরেশন। এছাড়া নগরী পরিষ্কারের পর পর্যাপ্ত পরিমান ব্লিচিং পাউডার ছিটানো হবে।

তিনি বলেন, ২৭টি ওয়ার্ডে নির্ধারিত ২৭টি স্থানে পশু কোরবানির স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে। সবাই যদি নির্ধারিত স্থানে পশু কোরবানি দিলে করপোরেশনের দ্রুত পরিষ্কার করতে সুবিধা হয়।

প্রসঙ্গত, সিলেট মহানগরীতে প্রতিদিন ২৫০-৩০০ মেট্রিক টন বর্জ্য সৃষ্টি হয়। কোরবানির ঈদে সেটি ৫০০ মেট্রিক টনে গিয়ে দাঁড়ায়। এ অবস্থায় দ্রুত বর্জ্য অপসারণ চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখা দেয়।

Sharing is caring!

Loading...
Open