বৈধ ১২টি পশুর হাট থেকে পশু ক্রয় করার জন্য অনুরোধ, সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ

আহমেদ শাকিল:: কোরবানির ঈদকে সামনে সিলেট মহানগরীতে ১২টি পশুর হাট বসেছে বলে জানিয়েছে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ।

এই ১২টি পশুর হাট ব্যতীত অন্য কোন অবৈধ পশুর হাট থেকে নগরবাসীকে পশু ক্রয় না করার অনুরোধ জানিয়েছেন তারা।

এছাড়া ঈদুল আজহা ও কোরবানির পশুর হাটকে কেন্দ্র করে নাগরিক জীবনের নিরাপত্তা বিধান এবং ঈদের অনাবিল আনন্দ ও শান্তি-শৃঙ্খলা অটুট রাখতে সিলেট মহানগর পুলিশ বিভিন্ন ধরণের নির্দেশাবলী পালনেরও অনুরোধ জানিয়েছে।

বুধবার (১৫ আগস্ট) গণমাধ্যমে প্রেরিত সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (মিডিয়া) আব্দুল ওয়াহাব স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ অনুরোধ জানানো হয়।

সিলেট মহানগর পুলিশ আইন ২০০৯ এর ২৯ ধারার প্রদত্ত ক্ষমতাবলে নিম্নলিখিত নির্দেশাবলী অনুসরণের নির্দেশ দিয়েছে পুলিশ।

নিম্নে উল্লেখিত বৈধ ১২টি পশুর হাট থেকে পশু ক্রয় করার জন্য অনুরোধ জানানো হয়-

১.কোতোয়ালী থানার কাজীরবাজার পশুর হাট,২. জালালাবাদ থানার শিবের বাজার পশুর হাট,৩.কুড়িরগাঁও (ইসলামগঞ্জ বাজার) পশুর হাট,৪.এয়ারপোর্ট থানার সাহেব বাজার সুন্নিয়া হাফিজিয়া দাখিল মাদ্রাসার মাঠ,৫.দক্ষিণ সুরমা থানার লালাবাজার পশুর হাট,৬.কামালবাজার পশুর হাট,৭. মোগলাবাজার থানার জালালপুর পশুর হাট,৮.হাজীগঞ্জ বাজার হাট,৯.রাখালগঞ্জ বাজার পশুর হাট।

এছাড়া শাহপরাণ (রঃ) থানা এলাকায় ৩টি পশুর হাট বসবে বলে জানানো হয়।

নির্দেশনায় আরও বলা হয়-

ব্যাংক, অর্থলগ্নি প্রতিষ্ঠানসহ অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের বড় ধরনের আর্থিক লেনদেনের ক্ষেত্রে পুলিশের সহায়তা গ্রহণ করুন।

কোরবানির পশু সিটি করপোরেশন কর্তৃক নিদিষ্ট স্থানে এবং ইউনিয়ন এলাকায় নিদিষ্ট স্থানে জবাই করার জন্য অনুরোধ করা হল। পশু জবাইয়ের বর্জ্য নিদিষ্ট জায়গায় রাখার জন্য অনুরোধ করা হল।

এ ক্ষেত্রে  স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর এর সাথে যোগাযোগ করে অস্থায়ী পশু জবাই এর স্থান সম্পর্কে জানার জন্য অনুরোধ করা গেল।প্রতিটি পশুর হাটে জাল টাকা শনাক্তে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের বুথে জাল টাকা শনাক্তকরণ মেশিন দ্বারা টাকা পরীক্ষা করার অনুরোধ করা হল।ঈদগাহে যাওয়ার সময় নগদ অর্থ, মোবাইল ফোন বহন করার ক্ষেত্রে সর্তক থাকুন।ঈদ উপলক্ষে বাসা/বাড়িতে গৃহকর্মী নিযুক্ত করলে তাদের প্রতি বিশেষ নজর রাখুন, ঈদগাহ মাঠে প্রবেশের সময় জায়নামাজ ব্যতীত অন্য কোন বস্তু না নেওয়ার জন্য সকলকে নিরুৎসাহিত করা হল।ট্রাফিক আইন মেনে চলুন।

ঈদগাহ মাঠের যানজট নিরসনকল্পে ব্যক্তিগত গাড়ী ঈদগাহ মাঠ হতে দূরে পার্কিং এর জায়গায় রাখুন।ঈদ উপলক্ষে ছুটিতে গেলে বা বাসা ত্যাগ করলে আপনার বাসার দরজা-জানালা সঠিকভাবে তালাবন্ধ করুন, আপনার বাসা/ অফিসে ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা ব্যবহার করুন, দরজায় নিরাপত্তা এলার্মযুক্ত তালা ব্যবহার করুন, মহল্লা ও বাড়ির সামনে সন্দেহজনক কাউকে/দুষ্কৃতিকারীকে ঘোরাফেরা করতে দেখলে স্থানীয় পুলিশ ফাঁড়ি ও থানা পুলিশকে অবহিত করুন।ঈদের আগে/পরে সময় নিয়ে ভ্রমণ পরিকল্পনা করুন। শেষ মুহূর্তে ট্রেন ও বাসের মারাত্মক ভিড় এড়িয়ে চলুন।

জীবনের ঝুঁকি নিয়ে অতিরিক্ত যাত্রী ট্রেন ও বাসে চলাচল করবেন না। ট্রেন ও বাসের ছাদে এবং ট্রাকে ভ্রমণ বিপদজনক।পুরুষ ও নারী পকেটমার এবং প্রতারক হতে সর্তক থাকুন।

বাস টার্মিনালসমূহে, রাস্তায় ও হাটে আগত ক্রেতা বিক্রেতাগণ কোন অপরিচিত ব্যক্তি, অজ্ঞান পার্টির নিকট হতে কোন খাদ্যদ্রব্য গ্রহণ না করার জন্য অনুরোধ করা হল।রাত্রিকালে জনবহুল রাস্তা দিয়ে চলাচল করার চেষ্টা করুন।

রাস্তায় চলাচলের সময় সঙ্গে থাকা মূল্যবান সামগ্রী বা টাকা পয়সা সম্পর্কে সাবধানতা অবলম্বন করুন এবং মধ্য কিংবা শেষ রাতে বাস স্ট্যান্ডে নামলে সতর্কতার সাথে চলাচল করুন,

প্রয়োজনে পুলিশের সহায়তা নিন।ট্যাক্সি/অটোরিকশা বা ভাড়ায় চালিত অন্যান্য গাড়ি ভাড়া করার সময় গাড়ির রেজিস্ট্রেশন নম্বর এবং ড্রাইভারের নাম ঠিকানা লিখে নিন, যাত্রী সাধারণকে ট্রাকে করে ঈদ ভ্রমণ না করার জন্য অনুরোধ করা হল।

সন্দেহজনক কোন ব্যক্তি বা বস্তু প্রত্যক্ষ করলে অথবা আপনার যে কোন মতামত/ অভিমত/ অভিযোগ জানাতে নিম্নে বর্ণিত নাম্বারসমূহে অবহিত করার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করা হয়। নম্বরগুলো হল-

পুলিশ কন্ট্রোল রুম (২৪ ঘণ্টা খোলা)- ০১৭১৩-৩৭৪৩৭৫, ০১৯৯৫-১০০১০০, ০৮২১-৭১৬৯৬৮ট্রাফিক কন্ট্রোল রুম- ০৮২১-৭১৮০২৮ডিবি কন্ট্রোল রুম- ০৮২১-৭২০০৬৬ওসি, কোতোয়ালি-০১৭১৩৩৭৪৫১৭ওসি, জালালাবাদ-০১৭১৩৩৭৪৫২২ওসি,এয়ারপোর্ট- ০১৭১৩৩৭৪৫২১ওসি, দক্ষিণ সুরমা- ০১৭১৩৩৭৪৫১৮ওসি, শাহপরান- ০১৭১৩৩৭৪৩১০ওসি,মোগলাবাজার- ০১৭১৩৩৭৪৫১৯পুলিশ কমিশনার- ০১৭১৩-৩৭৪৫০৬অতি: পুলিশ কমিশনার- ০১৭১৩-৩৭৪৫০৭ডিসি (সদর ও প্রশাসন)- ০১৭১৩-৩৭৪৫০৮ডিসি (উত্তর)- ০১৭১৩-৩৭৪৫০৯ডিসি (দক্ষিণ)- ০১৭১৩-৩৭৪৫১০ডিসি (ট্রাফিক)- ০১৭১৩-৩৭৪৫১১

সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে শান্তিশৃঙ্খলা রক্ষায়, অপরাধ দমনে ও শান্তিপূর্ণভাবে যথাযথ ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের সাথে পবিত্র ঈদুল আজহা পালনে নগরবাসীর সহযোগিতা কামনা করা হয়।

Sharing is caring!

Loading...
Open