বাংলাদেশে ফেসবুক অ্যাডমিন চায় পুলিশ

সুরমা টাইমস ডেস্ক:: ফেসবুকে গুজব রটানো ঠেকাতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমটির বাংলাদেশে একজন অ্যাডমিনিস্ট্রেটর রাখার অনুরোধ করেছেন পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী।

সোমবার পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান তিনি।

আইজিপি বলেন, ‘আমরা ফেসবুক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে একাধিকবার বসেছি। বাংলাদেশে তাদের একজন অ্যাডমিনিস্ট্রেটর রাখার অনুরোধ করেছিলাম। সম্প্রতি আবারও অনুরোধ করেছি।’

তিনি বলেন, ‘গত ২৯ জুলাই সড়ক দুর্ঘটনায় ২ স্কুল শিক্ষার্থীর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে ছাত্র-ছাত্রীরা রাস্তায় নেমে আসেন। তাৎক্ষণিকভাবে তাদের প্রতিবাদ ছিল যুক্তিযুক্ত। তারা মানুষের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টি করতে চেয়েছিলেন, আমরাও তাদের সহায়তা করেছি। পরবর্তীতে অনুপ্রবেশকারীরা হীন উদ্দেশ্যে সামাজিক মাধ্যম ব্যবহার করে গুজব ছড়িয়ে আন্দোলনকে ভিন্ন খাতে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেছে।’

ফলে ৬ আগস্ট থেকে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় পুলিশ কঠোর হতে বাধ্য হয় বলে উল্লেখ করেন পুলিশ প্রধান।

তিনি আরও বলেন, ‘সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অনেক ভালো কাজ হয়। কিন্তু সবচেয়ে বেশি হয় গুজব ছড়ানো। বিভ্রান্তিকর পোস্ট দিয়ে গুজব ছড়ানো কয়েকশ অনলাইন পোস্টদাতাকে আমরা শনাক্ত করেছি। ইতোমধ্যে ২১টি মামলা হয়েছে। সবাইকে শনাক্ত করে শিগগিরই আইনের আওতায় আনা হবে। গুজব ছড়ানো কাউকেই ছাড় দেয়া হবে না। পুলিশ কাউকে হীনস্বার্থ চরিতার্থ করতে দেবে না।’

আইজিপি’র ভাষ্য, ‘সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়ানো এসব গুজবের বিরুদ্ধে পুলিশের পক্ষ থেকে বিভিন্ন ইউনিটের সমন্বয়ে সদর দপ্তরে একটি শক্তিশালী সাইবার মনিটরিং ইউনিট গঠন করা হয়েছে। যাদের মাধ্যমে নিয়মিত সাইবার পেট্রোলিং করা হবে। এর মাধ্যমে প্রতিটি জেলাপর্যায়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের কার্যক্রমগুলো মনিটরিং করা হবে।’

আইজিপি এ সময় গুজবে কান না দিতে সবাইকে আহ্বান জানান। শান্তিপূর্ণ দেশকে অশান্ত না করারও অনুরোধ জানান তিনি।

Sharing is caring!

Loading...
Open