নগরীতে ফের অভ্যন্তীর কোন্দলের বলি ছাত্রদল নেতা রাজু…….!

নিজস্ব প্রতিবেদক ::   সিলেট সিটি করপোরেশনের পুন:নির্বাচিত মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর বিজয় মিছিল শেষে ফেরার সময় নিজ দলের ক্যাডারদের হামলায় নিহত হয়েছেন সিলেট মহানগর ছাত্রদলের সাবেক সহ প্রচার সম্পাদক ফয়জুল হক রাজু।

গতকাল শনিবার রাত ৯টার দিকে আরিফুল হক চৌধুরীর বাসার পাশে কুমারপাড়া পয়েন্ট এলাকায় এ হামলার ঘটনা ঘটে।

এই খুনের পেছনে সিটি নির্বাচনের আগে গঠন হওয়া সিলেট জেলা ও মহানগর ছাত্রদলের কমিটিকেই দায়ী করছেন সংশ্লিষ্টরা। কমিটি গঠনের পরে দুভাগে ভাগ হয়ে যায় সিলেট ছাত্রদল। এক পক্ষ কমিটির পক্ষে আরেক পক্ষ বিপক্ষে। নির্বাচনের পূর্বে দুপক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া এমনকি ছোটখাট সংঘর্ষের ঘটনাও ঘটে।

জানা গেছে- এই কমিটি নিয়ে দ্বন্দ্বের জের ধরেই কুমারপাড়ায় ছাত্রদল নেতা রাজুর উপর হামলা চালানো হয়েছে। নিহত রাজু সিলেট জেলা ছাত্রদলের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এখলাছুর রহমান মুন্নার সহকর্মী। তারা ছাত্রদলের নবগঠিত কমিটির বিপক্ষে অবস্থান করছিল।

অপরদিকে হামলাকারীরা মহানগর ছাত্রদলের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রকিব চৌধুরীর সমর্থক বলে দাবী খুন হওয়া রাজুর সহকর্মীদের। আব্দুর রকিব ও তার কর্মীরা নবগঠিত ছাত্রদলের কমিটির পক্ষে ছিলেন। শনিবার (১১ই আগস্ট) রাত সাড়ে ১০টায় সিলেট ওসমানী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাজুর মৃত্যু হয় বলে পুলিশ জানায়।

এছাড়াও ছাত্রদলকর্মী উজ্জ্বল আহমদ ও লিটন সিলেট ওসমানী হাসাপাতালে চিকিৎসাধীন। শনিবার (১১ই আগস্ট) রাত সাড়ে ৯টার এ ঘটনা ঘটে কুমারপাড়াস্থ পয়েন্ট এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

এব্যাপারে সিলেট মহানগর পুলিশের উপ পুলিশ কমিশনার আব্দুল ওয়াহাব (গণমাধ্যম) জানান, প্রাথমিকভাবে পুলিশ ধারণা করছে আভ্যন্তরীণ কোন্দেলের জেরধরে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। রাজুর শরীরের একাধিক ধারলো অস্ত্রের আঘাত রয়েছে। এছাড়াও তার শরীরের গুলির আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য তার লাশ সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পাওয়ার পর বিস্তারিত জানা যাবে।
পুলিশ দুপক্ষের সংঘর্ষের খবর শুনে ঘটনাস্থলে যায়। যতটুকু জেনেছি ছাত্রদলের কমিটিকে কেন্দ্র করে একটি পক্ষ হামলা চালায়। যারা আহত হয়েছে তারা নাকি জেলা ও মহানগর ছাত্রদলের কমিটি বাতিলের জন্য সম্প্রতি মিছিল মিটিং করেছে। এরই জেরধরে হামলার ঘটনা ঘটেছে বলে পুলিশ জানতে পেরেছে।

Sharing is caring!

Loading...
Open