ট্রাফিক সপ্তাহ : নগরীতে ৩দিনে ১১শ’ মামলা, ৫৮ গাড়ি আটক……..

স্টাফ রিপোর্টার::
চলছে ট্রাফিক সপ্তাহ। গত রবিবার থেকে শুরু হওয়া এই বিশেষ সেবা সপ্তাহের প্রথম তিন দিনে সিলেটে যানবাহন ও চালকের মধ্যে ১১শ’টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এছাড়া আটক করা হয়েছে ৫৮টি গাড়ি। দায়েরকৃত মামলার মধ্যে যানবাহানের কাগজ না থাকায় ৭৬১ টি ও ড্রাইভিং লাইসেন্স না থাকায় ৩৩৯টি মামলা দায়ের করা হয়। এসব তথ্য নিশ্চিত করে সিলেট মহানগর পুলিশের ইন্সপেক্টর (ট্রাফিক) হাবিব হোসেন বলেন, ৫আগস্ট ২৬৮টি, ৬ আগস্ট ৪৪২টি ও ৭ আগস্ট সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত ৩৯০টি মামলা করা হয়।

তিনি বলেন, গাড়ির কাগজ না থাকা ও ড্রাইভিং লাইসেন্স ছাড়া গাড়ি চালানোর অভিযোগে এসব মামলা করা হয়েছে। পুলিশ এব্যাপারে কঠোর অবস্থান নিয়েছে। নগরীর বিভিন্ন মোড়ে চেকপোস্ট বসিয়ে বসিয়ে গাড়ি ও চালকের কাগজপত্র পরীক্ষা করা হচ্ছে। এব্যাপারে জনগনকে সচেতন হতেও প্রচারণা চালানো হচ্ছে বলে জানান তিনি।

পুলিশের ট্রাফিক বিভাগ সূত্রে জানা যায়, কাগজপত্রে ব্যাপক অনিয়মের কারণে রবিবার ২৫টি, সোমবার ২৩টি ও মঙ্গলবার ১০টি গাড়ি আটক করে পুলিশ লাইনে নিয়ে যাওয়া হয়। আটক গাড়িগুলোর মধ্যে বেশিরভাগই মোটরসাইকেল বলে জানিয়েছে পুলিশ।

এ ব্যাপারে সিলেট মহানগর পুলিশের উপ কমিশনার (ট্রাফিক) তোফায়েল আহমদ বলেন, ট্রাফিক সপ্তাহের প্রথম দিন থেকেই অবৈধ যানবাহন ও লাইসেন্সবিহীন চালকের বিরুদ্ধে পুলিশ কঠোর অবস্থান নিয়েছে। নগরীর বিভিন্ন মোড়ে অভিযান চালিয়ে ট্রাক, বাস, মাইক্রোবাস-মিনিবাস, অটোরিকশা, মোটরসাইকেলসহ বিভিন্ন রকম গাড়ির কাগজপত্র যাচাই বাছাই করা হচ্ছে। এতে কোনো ব্যতয় পেলেই আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। কাউকেই ছাড় দেওয়া হচ্ছে। আগামী শনিবার পর্যন্ত এ অভিযান চলবে বলে জানান তোফায়েল আহমদ।

এর আগে নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের প্রেক্ষিতে সারা দেশে জাতীয় ট্রাফিক সপ্তাহ ঘোষণা করে পুলিশ। এর অংশ হিসেবে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ ট্রাফিক সপ্তাহ’র তিনে দিনে নগরীর বিভিন্ন জায়গায় অভিযান পরিচালনা করে এসব গাড়ি ও চালকের বিরুদ্ধে মামলা দেয়। এতে ট্রাফিক পুলিশের সাথে সিলেট জেলা রোভার স্কাউটসের রোভাররা সহায়তা করছেন।

Sharing is caring!

Loading...
Open