সিলেট-সুনামগঞ্জে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় আহত ১৫

ছাতক প্রতিনিধি ::
সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়কে লেগুনা-ট্রাক ও বাস-সিএনজির মধ্যে মধ্যে পৃথক সংঘর্ষে চালকসহ ১৫যাত্রী আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। বুধবার রাতে সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়কের ধনপুর গ্রাম সংলগ্ন সড়কে লেগুনা-ট্রাক সংঘর্ষে ১৪ যাত্রী আহত হয়েছেন। গুরুতর আহত আশিক মিয়াসহ ৫জনকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অন্যাদের স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সিলেট শহরের বন্দর ষ্ট্যান্ড থেকে ১৪জন যাত্রী নিয়ে ছাতকের গোবিন্দগঞ্জের অভিমুখে যাত্রা করে যাত্রীবাহি লেগুনা। প্রতিমধ্যে ধনপুর গ্রাম সংলগ্ন এলাকায় পৌঁছামাত্র বিপরিত দিক থেকে আসা ট্রাকের সাথে সংঘর্ষ বাঁধে। এসময় ইমা-লেগুনা সড়কে উল্টে যায়। এতে লেগুনার যাত্রী ছাতক উপজেলার দক্ষিণ খুরমা ইউনিয়নের ভূইগাঁও শেওলাপাড়া গ্রামের আশিক মিয়া (২৫), গোবিন্দগঞ্জের দিঘলী রামপুর গ্রামের আলমঙ্গীর হোসেনসহ ৫জনকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অন্য আহতদের স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। আহত সকলের নাম ঠিকানা তাৎক্ষনিক জানা সম্ভব হয়নি।
এদিকে, বুধবার দুপুরে সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়কের সুহিতপুর এলাকায় সিলেটগামী যাত্রীবাহি বাসের ধাক্কায় কালা মিয়া নামের এক সিএনজি চালক আহত হয়েছেন। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে স্থানীয় কৈতক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সে উপজেলার উত্তর খুরমা ইউনিয়নের মাঞ্জিহারা আলমপুর গ্রামের বাসিন্ধা। এসময় যাত্রীবাহি মিনিবাসটি সড়কের একটি গাছের সাথে আটকা পড়ে বড় ধরনের দূর্ঘটনা থেকে রক্ষা পায়।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বুধবার দুপুর ২টার দিকে গোবিন্দগঞ্জ থেকে সিএনজি (নং-সিলেট-থ-১২-৮৯৮৯) নিয়ে বাড়ি ফেরার পথে সুহিতপুর গ্রাম সংলগ্ন এলাকায় পৌঁছা মাত্র সুনামগঞ্জ থেকে সিলেটগামী যাত্রীবাহি মিনিবাস (নং-সিলেট-জ-১১-০৫৮৯) ধাক্কা দেয়। এসময় যাত্রীবিহীন সিএনজি এক পাশের্^ ছিটকে পড়ে ও মিনিবাসটি সড়কের একটি গাছের সাথে আটকা পড়ে। এতে বড় ধরনের দূর্ঘটনা থেকে রক্ষা পায় সিলেটগ্রামী বাস যাত্রীরা। এ ব্যাপারে সড়কের জয়কলস হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই শরিফ মাহমুদ দূর্ঘটনার কথা স্বীকার করে বলেন বড় ধরণের দূর্ঘটনার থেকে রক্ষা হয়েছে। তিনি শুনেছেন সিএনজির চালক শুধু আহত হয়েছে। ঘটনাস্থলে বাসটি পাওয়া গেলেও সিএনজি পাওয়া যায়নি বলে জানান।

Sharing is caring!

Loading...
Open