সিলেটে জামানত হারালেন যেসব কাউন্সিলর প্রার্থী……..

নিজস্ব প্রতিবেদক:: সিলেট সিটি নির্বাচনে ২৭ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে প্রার্থী ছিলেন ১২৬ জন। এরমধ্যে দুই ওয়ার্ডের দুটি কেন্দ্র স্থগিত হওয়ায় ২৫ জন কাউন্সিলরকে বেসরকারীভাবে বিজয়ী ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন।

এই ২৫ ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে অংশ নেওয়া ১১৯ জন প্রার্থীর মধ্যে ৫৭ জন প্রার্থীরই জামানত বাজেয়াপ্ত হয়েছে। নিয়ম অনুযায়ী কোন প্রার্থী মোট কাস্টিং ভোটের ৮ ভাগের ১ ভাগ অর্থাৎ সাড়ে ১২ শতাংশ ভোট না পেলে তার জামানত হারাবেন। উল্লিখিত সংখ্যক প্রার্থীরা তাদের ওয়ার্ডে সাড়ে ১২ শতাংশ ভোট না পাওয়ায় তাদের জামানত বাজেয়াপ্ত হবে।

সিলেট সিটি নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার কর্তৃক প্রাপ্ত তথ্য মতে,                                                                                                                    ১নং ওয়ার্ডে ভোট পড়েছে ৫ হাজার ২২৯ টি। জামানত রক্ষার জন্য প্রার্থীদের প্রয়োজন ছিল ৬৫৩ ভোট। কিন্তু এরচেয়ে কম ভোট পেয়ে জামানত হারিয়েছেন ৬জন প্রার্থী। তারা হলেন- আনোয়ার হোসেন মানিক, ইকবাল আহমদ রনি, মুবিন আহমদ, এজহারুল হক চৌধুরী, মুফতি কমর উদ্দিন, সলমান আহমদ চৌধুরী।

২নং ওয়ার্ডে ভোট পড়েছে ৩ হাজার ৯৪৭ টি। জামানত রক্ষার জন্য প্রার্থীদের প্রয়োজন ছিল ৪৯৩ ভোট। এ ওয়ার্ডে ৩জন প্রার্থীর মধ্যে জামানত হারিয়েছেন ১জন প্রার্থী। তিনি হলেন রাসেল মামুন ইবনে রাজ্জাক।

৩নং ওয়ার্ডে ভোট পড়েছে ৬ হাজার ৯৫ টি। জামানত রক্ষার জন্য প্রার্থীদের প্রয়োজন ছিল ৭৬২ ভোট। এ ওয়ার্ডে ৬জন প্রার্থীর মধ্যে জামানত হারিয়েছেন ৪জন প্রার্থী। তারা হলেন- আব্দুল খালিক, রাজিব কুমার দে, শামীম আহমদ চৌধুরী, সালেহ আহমদ।

৪নং ওয়ার্ডে ভোট পড়েছে ৪ হাজার ৬৯৩ টি। জামানত রক্ষার জন্য প্রার্থীদের প্রয়োজন ছিল ৫৮৬ ভোট। এ ওয়ার্ডেও ৬জন প্রার্থীর মধ্যে জামানত হারিয়েছেন ৪জন প্রার্থী। তারা হলেন- জাবের আহমদ চৌধুরী, মোহাম্মদ কামরুজ্জামান, শেখ তোফায়েল আহমদ সেফুল, শাকিল আহমদ।

৫নং ওয়ার্ডে ভোট পড়েছে ৮ হাজার ৫৪৮ টি। জামানত রক্ষার জন্য প্রার্থীদের প্রয়োজন ছিল ১ হাজার ৬৮ ভোট। এ ওয়ার্ডেও ৬জন প্রার্থীর মধ্যে জামানত হারিয়েছেন ৪জন প্রার্থী। তারা হলেন- আমিনুর রহমান পাপ্পু, কাজী নজমুল আহমদ, রিমাদ আহমদ রুবেল, নিলুফা সুলতানা চৌধুরী লিপি।

৬নং ওয়ার্ডে ভোট পড়েছে ৭ হাজার ৯৬৮ টি। জামানত রক্ষার জন্য প্রার্থীদের প্রয়োজন ছিল ৯৯৬ ভোট। এ ওয়ার্ডে ৪জন প্রার্থীর মধ্যে জামানত হারিয়েছেন ২জন প্রার্থী। তারা হলেন- শাহীন মিয়া, ইয়ার মো. এনামুল হক।

৭নং ওয়ার্ডে প্রার্থী ছিলেন দুজন। সেখানে ভোট পড়েছে ১০ হাজার ৫৩৩টি। এই পরাজিত প্রার্থী সায়ীদ মো. আব্দুল্লাহর জামানত রক্ষা হয়েছে।

৮নং ওয়ার্ডে ভোট পড়েছে ১১ হাজার ৪১২ টি। জামানত রক্ষার জন্য প্রার্থীদের প্রয়োজন ছিল ১ হাজার ৪২৬ ভোট। এ ওয়ার্ডে ৬জন প্রার্থীর মধ্যে জামানত হারিয়েছেন ৪জন প্রার্থী। তারা হলেন- বিদ্যুৎ দাস, শাহাদত খান, শাহেদ আহমদ, ফয়জুল হক।

৯নং ওয়ার্ডে ভোট পড়েছে ৮ হাজার ৬৪৭ টি। জামানত রক্ষার জন্য প্রার্থীদের প্রয়োজন ছিল ১ হাজার ৮০ ভোট। এ ওয়ার্ডে ৪জন প্রার্থীর মধ্যে জামানত হারিয়েছেন ২জন প্রার্থী। তারা হলেন- বিধান কপালী, হাফিজুর রহমান।

১০নং ওয়ার্ডে ভোট পড়েছে ৮ হাজার ৭৪৯ টি। জামানত রক্ষার জন্য প্রার্থীদের প্রয়োজন ছিল ১ হাজার ৯৩ ভোট। এ ওয়ার্ডে ৬জন প্রার্থীর মধ্যে জামানত হারিয়েছেন ২জন প্রার্থী। তারা হলেন- মো. সফিকুল ইসলাম ও মো. মুজিবুর রহমান।

১১নং ওয়ার্ডে ভোট পড়েছে ৮ হাজার ৪৫৭ টি। জামানত রক্ষার জন্য প্রার্থীদের প্রয়োজন ছিল ১ হাজার ৫৭ ভোট। এ ওয়ার্ডে ৪জন প্রার্থীর মধ্যে জামানত হারিয়েছেন ২জন প্রার্থী। তারা হলেন- মির্জা এম এস হোসেন ও কবীর আহমদ।

১২নং ওয়ার্ডে ভোট পড়েছে ৮ হাজার ১৬৬ টি। জামানত রক্ষার জন্য প্রার্থীদের প্রয়োজন ছিল ১ হাজার ২১ ভোট। এ ওয়ার্ডে ৬জন প্রার্থীর মধ্যে জামানত হারিয়েছেন ৩জন প্রার্থী। তারা হলেন- রুবেল আহমদ, সালাউদ্দিন মিয়া, আজহার উদ্দিন জাহাঙ্গীর।

১৩নং ওয়ার্ডে ভোট পড়েছে ৬ হাজার ৭১২ টি। জামানত রক্ষার জন্য প্রার্থীদের প্রয়োজন ছিল ৮৩৯ভোট। এ ওয়ার্ডে ৫জন প্রার্থীর মধ্যে জামানত হারিয়েছেন ২জন প্রার্থী। তারা হলেন- এবাদ খান দিনার ও সুমন আহমদ।

১৪নং ওয়ার্ডে ভোট পড়েছে ৬ হাজার ১৬৭ টি। জামানত রক্ষার জন্য প্রার্থীদের প্রয়োজন ছিল ৭৭১ভোট। এ ওয়ার্ডে ৫জন প্রার্থীর মধ্যে জামানত হারিয়েছেন ২জন প্রার্থী। তারা হলেন- সাঈদী আহমদ ও রনজিৎ চৌধুরী।

১৫নং ওয়ার্ডে ভোট পড়েছে ৬ হাজার ৫১৬ টি। জামানত রক্ষার জন্য প্রার্থীদের প্রয়োজন ছিল ৮১৪ভোট। এ ওয়ার্ডে ৪জন প্রার্থীর মধ্যে জামানত হারিয়েছেন ১জন প্রার্থী। তিনি হলেন মো. আব্দুল গফফার।

১৬নং ওয়ার্ডে ভোট পড়েছে ৬ হাজার ৪৫৪ টি। জামানত রক্ষার জন্য প্রার্থীদের প্রয়োজন ছিল ৮০৭ভোট। এ ওয়ার্ডে ৮জন প্রার্থীর মধ্যে জামানত হারিয়েছেন ৬জন প্রার্থী। তারা হলেন- একরামুল আজিজ, তামিম আহমদ খাঁন, তমাল রহমান, শাহজাহান আহমদ, মির্জা বেলায়েত আহমদ (লিটন), কুমার গণেশ পাল।

১৭নং ওয়ার্ডে প্রার্থী ছিলেন দুজন। সেখানে ভোট পড়েছে ৮ হাজার ৪৯৭টি। এই পরাজিত প্রার্থী দিলওয়ার হোসাইন সজিবের জামানত রক্ষা হয়েছে।

১৮নং ওয়ার্ডে ভোট পড়েছে ৭ হাজার ২৩ টি। জামানত রক্ষার জন্য প্রার্থীদের প্রয়োজন ছিল ৮৭৮ভোট। এ ওয়ার্ডে ৬জন প্রার্থীর মধ্যে জামানত হারিয়েছেন ২জন প্রার্থী। তারা হচ্ছেন- শামসুর রহমান কামাল ও সাজেদ আহমদ চৌধুরী।

১৯নং ওয়ার্ডে ভোট পড়েছে ৬ হাজার ৩২২ টি। জামানত রক্ষার জন্য প্রার্থীদের প্রয়োজন ছিল ৭৯০ভোট। এ ওয়ার্ডে ৪জন প্রার্থীর মধ্যে জামানত হারিয়েছেন ২জন প্রার্থী। তারা হচ্ছেন- জমশেদ সিরাজ ও আফজালুর রহমান।

২০নং ওয়ার্ডে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন আজাদুর রহমান আজাদ। সেখানে আর কোন প্রার্থী না থাকায় সাধারণ কাউন্সিলর পদে ভোট গ্রহণের প্রয়োজন হয়নি।

২১নং ওয়ার্ডে ভোট পড়েছে ৯ হাজার ৮৭ টি। জামানত রক্ষার জন্য প্রার্থীদের প্রয়োজন ছিল ১ হাজার ১৩৬ ভোট। এ ওয়ার্ডে ৪জন প্রার্থীর মধ্যে জামানত হারিয়েছেন ১জন প্রার্থী। তিনি হেলন মুহিব উস সালাম রিজভী।

২২নং ওয়ার্ডে ভোট পড়েছে ৫ হাজার ৬৯৪ টি। জামানত রক্ষার জন্য প্রার্থীদের প্রয়োজন ছিল ৭১২ভোট। এ ওয়ার্ডে ৬জন প্রার্থীর মধ্যে জামানত হারিয়েছেন ৩জন প্রার্থী। তারা হচ্ছেন- মোহাম্মদ দিদার হোসেন, মোহাম্মদ আবু জাফর ও ইব্রাহীম খাঁন সাদেক।

২৩নং ওয়ার্ডে ভোট পড়েছে ৪ হাজার ৭৫১ টি। জামানত রক্ষার জন্য প্রার্থীদের প্রয়োজন ছিল ৫৯৪ ভোট। এ ওয়ার্ডে ৪জন প্রার্থীর মধ্যে জামানত হারিয়েছেন ২জন প্রার্থী। তারা হচ্ছেন- মামুনুর রহমান মামুন, ছাব্বির আহমদ।

২৪নং ওয়ার্ডের একটি কেন্দ্রে ভোট স্থগিত হওয়ায় এই ওয়ার্ডের ফলাফল ঘোষণা হয়নি। তবে এখানে কোন প্রার্থীরই জামানত হারানোর সম্ভাবনা নেই।

২৫নং ওয়ার্ডে ভোট পড়েছে ৮ হাজার ৬৬৯ টি। জামানত রক্ষার জন্য প্রার্থীদের প্রয়োজন ছিল ১ হাজার ৮৪ ভোট। এ ওয়ার্ডে ৪জন প্রার্থীর মধ্যে জামানত হারিয়েছেন ১জন প্রার্থী। তিনি হলেন মোফজ্জুল হোসেন তালুকদার।

২৬নং ওয়ার্ডে ভোট পড়েছে ৯ হাজার ৪৬১ টি। জামানত রক্ষার জন্য প্রার্থীদের প্রয়োজন ছিল ১ হাজার ১৮৩ ভোট। এ ওয়ার্ডে ৫জন প্রার্থীর মধ্যে জামানত হারিয়েছেন ৩জন প্রার্থী। তারা হচ্ছেন- রেজাউল করিম, মঈন উদ্দিন ও আব্দুল মন্নান।

২৭নং ওয়ার্ডেও একটি কেন্দ্রে ভোট স্থগিত হওয়ায় এই ওয়ার্ডের ফলাফল ঘোষণা হয়নি।

Sharing is caring!

Loading...
Open