হবিগঞ্জে সমিতির মালিকানা নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষ

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি::
হবিগঞ্জের বানিয়াচঙ্গে একটি সঞ্চয় ও ঋণদান সমবায় সমিতির এর মালিকানা নিয়ে দু’ পক্ষের লোকজনের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষে প্রায় অর্ধশত লোকজন আহত হয়েছে। টেটাবিদ্ধ গুরুতর আহত অবস্থায় ১৪ জনকে ঢাকা ও সিলেট হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে এবং ৩০ জনকে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে ৫০জন।

বুধবার সন্ধ্যা থেকে ৯টা পর্যন্ত এ সংঘর্ষ চলে। এর জের ধরে রাত ১০টায় হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালেও দু’পক্ষের লোকজনের মধ্যে আবারো ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বানিয়াচং উপজেলার উত্তর সাঙ্গর গ্রামের আব্দুল হাকিম ফুল মিয়া ও একই গ্রামের আব্দাল রাজার মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বেসিক মাল্টিপারপাস সঞ্চয় ও ঋণদান সমবায় সমিতি-এর মালিকা নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। বিষয়টি নিয়ে কয়েকবার সালিশ বৈঠক অনুষ্ঠিত হলেও কোন সুরাহ হয়নি। এর জের ধরে গতকাল বুধবার সন্ধ্যা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত উভয় পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র দফায় দফায় সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। সংঘর্ষের সময় বাড়ি-ঘরে হামলা ভাংচুর ও লুটপাট করা হয়। খবর পেয়ে বানিয়াচং থানা ও সুজাতপুর ফাড়ির পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে ৭ রাউন্ড টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। সংঘর্ষে টেটাবিদ্ধসহ অর্ধশতাধিক লোকজন আহত হয়েছে। আশংকাজনক অবস্থায় টেটাবিদ্ধ আল আমিন (২০), মোঃ আদম আলী (৭০), আলদো (৪০), রমচান বিবি (৫০), আব্দুল মোতালিব (৫০), শেখ শামছুল হক (৭০), কাজল মিয়া (৭০), বাবুল মিয়া (৩২), আব্দুর রব (৩৫), সাইদুর (২০), আদাস আলী (৭০), সালাম (৬০), মারফুজ (৩০) ও জজ মিয়া (৫০)কে ঢাকা ও সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে এবং অন্য ৩০ জনকে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদিকে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে রোগীকে ভর্তি করার সময় রাত ১০টার দিকে দু’পক্ষের লোকজনের মধ্যে আবারো ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

বিষয়টি নিয়ে উভয় পক্ষের লোকজনের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। যে কোন সময় আবারো ভয়াবহ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটতে পারে বলে আশংকা করছেন এলাকাবাসী। সংঘর্ষ এড়াতে ওই এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে স্থানীয় সুজাতপুর ফাড়ির ইনচার্জ লোকমান জানান, সংঘর্ষের খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে এবং ঘটনার সাথে জড়িত ২২ জনকে আটক করা হয়েছে।

Sharing is caring!

Loading...
Open