টেমস আর সুরমা পাড়ের মানুষের সম্পর্ক যেন একই সুতোয় বাঁধা……..

নিজস্ব প্রতিবেদক :: সাত সমুদ্র তের নদীর দূরত্ব হলেও টেমস আর সুরমা পাড়ের মানুষের সম্পর্ক যেন একই সুতোয় বাঁধা। টেমসপাড়ের মানুষের হাসি-কান্না যেমন সুরমাপাড়ে ঢেউ তুলে, তেমনি সুরমাপাড়ের সুখ-দুঃখে ছুটে আসেন সেখানকার প্রবাসীরা। আর নির্বাচনী উৎসব হলে তো কথাই নেই; দলবেঁধে প্রবাসীরা ছুটে আসেন সুরমাপাড়ের সিলেটে। জাতীয় বা স্থানীয় নির্বাচনে অনেক ক্ষেত্রে ফ্যাক্টরও হয়ে ওঠেন তারা। বরাবরের মতো এবারও সিলেট সিটি নির্বাচনে প্রবাসীদের অংশগ্রহণ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় বিভাগীয় শহর সিলেটের বসবাসকারীদের একটি বড় অংশ প্রবাসী। ইউরোপ, আমেরিকা ও মধ্যপ্রাচ্যসহ বিভিন্ন দেশে বসবাসকারী প্রবাসীর প্রায় ৮০ ভাগই সিলেটি বংশোদ্ভূত। প্রবাসে বসবাস করলেও দেশের উন্নয়ন, সামাজিক, রাজনৈতিক বিষয়েও তারা সচেতন। তাই বরাবরের মতো এবারও সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনী উৎসবে শরিক হতে নাড়ির টানে অনেক প্রবাসী ছুটে এসেছেন দেশে।

সূত্রমতে, নির্বাচনকে সামনে রেখে কয়েক হাজার প্রবাসী সিলেটে ফিরেছেন। তাদের মধ্যে কেউ কেউ প্রচারণায় অংশ নিচ্ছেন পছন্দের কাউন্সিলর প্রার্থীর পক্ষে, আবার কেউ রাতদিন খাটছেন মেয়র প্রার্থীদের পক্ষে।

যুক্তরাজ্য থেকে আসা নগরীর বাদাম বাগিচা এলাকার রিপন আহমদ জানান, স্থানীয় এক কাউন্সিলর প্রার্থীর পক্ষে প্রচারণা চালাতেই কয়েকজন বন্ধুসহ তিনি দেশে এসেছেন। প্রতিদিন সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত তারা ওই প্রার্থীর পক্ষে কাজ করছেন বলে জানান তিনি।

মধ্যপ্রাচ্য থেকে আসা চৌকিদেখির বাসিন্দা ইশতিয়াক আহমদ পলাশ বলেন, ‘প্রবাসীরা দেশ ছেড়ে থাকলেও তাদের মন পড়ে থাকে দেশে। তাই সিলেটে ভোট উৎসব হলে সেখানকার প্রবাসীরাও সেই উৎসবে শরিক হওয়ার চেষ্টা করেন। সৎ ও যোগ্য প্রার্থীদেও নির্বাচিত করতেই আমরা প্রচারণায় অংশ নিতে দেশে এসেছি।’

বিদেশে স্থায়ীভাবে বসবাস করলেও প্রবাসীদের মন পড়ে থাকে জন্মভূমিতেই। নাগরিক সুবিধাসম্বলিত একটি আধুনিক শহরের স্বপ্ন দেখেন তারাও।

যুক্তরাজ্য থেকে আসা চৌকিদেখির আহাদ চৌধুরী বাবু বলেন, ‘প্রবাসী হলেও আমরা সিলেটকে নিয়ে অনেক স্বপ্ন দেখি। যানজটমুক্ত একটি পরিচ্ছন্ন নগরী হিসেবে আমরা সিলেটকে দেখতে চাই। সে লক্ষ্যে মেয়র নির্বাচনের প্রচারণায় অংশ নিতে দেশে এসেছি। পছন্দের প্রার্থীর পক্ষে সাধ্যমতো কাজও করে যাচ্ছি।’

এদিকে, সিটি নির্বাচনকে উপলক্ষ করে প্রবাসীরা দেশে আসলেও তাদের অনেকে আগামী নির্বাচনগুলোতে প্রার্থীরা হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন। তাই অনেকে সভা-সমাবেশ ও কর্মীসভার নামে অর্থ বিলাচ্ছেন দু’হাতে। এতে ভোটের পরিবেশ নষ্ট হওয়ারও আশঙ্কা করছেন সচেতন মহল।

সুশাসনের জন্য নাগরিক-সুজন, সিলেটের সভাপতি ফারুক মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ‘সিলেটে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে শুরু করে সংসদ নির্বাচন পর্যন্ত প্রায় সকল নির্বাচনে প্রবাসীরা প্রার্থী হয়ে থাকেন। অনেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে বিজয়ীও হয়েছেন। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন লাভের আশায় অনেক প্রার্থী দেশে এসে সিটি করপোরেশনের প্রচারণায় অংশ নিচ্ছেন।’

Sharing is caring!

Loading...
Open