“বিয়ানীবাজারে মোটর সাইকেল দূর্ঘটনায় নিহত কলেজ ছাত্রের দাফন সম্পন্ন”

বিয়ানীবাজার প্রতিনিধি :: বিয়ানীবাজারের মাথিউরায় মোটর সাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত কলেজ ছাত্র মোঃ আব্দুর রহমানের জানাজা শেষে দাফন সম্পন্ন হয়েছে। আজ (শুক্রবার) সিলেট আলীয়া মাদ্রাসা মাঠে প্রথম জানাজা শেষে বেলা আড়াইটায় মাথিউরা খলাগ্রাম ঈদগাহ মাঠে দ্বিতীয় জানাজা শেষে তাকে চিরনিদ্রায় পারিবারিক কবরে সমাহিত করা হয়।

জানাজায় অংশগ্রহণ করেন, জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় হুইপ, জকিগঞ্জ-কানাইঘাট (সিলেট-৫) আসনের সংসদ সদস্য সেলিম উদ্দিন, বিয়ানীবাজার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান খাঁন, পৌরসভার মেয়র মোঃ আব্দুস শুকুর, উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মোস্তাক আহমদ, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক সালেহ আহমদ বাবুল, প্রচার সম্পাদক হারুনুর রশীদ দিপু, উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি নজমুল হোসেন পুতুল, সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিক আহমদ, সুজন বিয়ানীবাজার উপজেলা শাখার সভাপতি এডভোকেট আমান উদ্দিন, বিয়ানীবাজার প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক খালেদ জাফরী, মাথিউরা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শিহাব উদ্দিন, যুবলীগ নেতা আলমগীর হোসেন রুনু, লেখক ও শিক্ষক ওয়ালী মাহমুদ, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক গ্রন্থনা ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক মোঃ আমান উদ্দিন, বিয়ানীবাজার জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের কোষাধ্যক্ষ সুফিয়ান আহমদসহ বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ, ব্যবসায়ী ও নানা শ্রেণীপেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার রাত ১১টার দিকে চাচার মোটর সাইকেল নিয়ে বের হয়ে  বিয়ানীবাজার-চন্দরপুর সড়কে সংযুক্ত খলাগ্রাম-কান্দিগ্রাম সড়কে থাকা নিরাপত্তা খুঁটির সাথে ধাক্কা লেগে গুরুত্বর আহত হয় উপজেলার মাথিউরা ইউনিয়নের খলাগ্রামের বাসিন্দা প্রবাসী জামাল উদ্দিনের পুত্র ও বিয়ানীবাজার পৌরশহরের কলেজ রোডের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ছফর উদ্দিনের ভাতিজা মোঃ আব্দুর রহমান। গুরুত্বর আহত অবস্থায় পথচারীরা তাকে উদ্ধার করে বিয়ানীবাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার পথে সে মারা যায়।

নিহত আব্দুর রহমান সিলেট কমার্স কলেজের একাদশ দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র। ঘটনার দিন সন্ধ্যার পর সে সিলেট থেকে বাড়িতে আসে। এদিন রাতে তাঁর সড়ক দূর্ঘটনায় মর্মান্তিক মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে আসে গ্রামবাসীসহ বন্ধু-বান্ধব ও সহপাঠিদের মাঝে। ছেলের মৃত্যুর সংবাদ শুনেই ইতালী থেকে রওয়ানা হন নিহত আব্দুর রহমানের পিতা জামাল উদ্দিন। তিনি দেশে অবতরণের পরই নির্ধারণ হয় জানাজার সময়। এর আগ পর্যন্ত নিহতের লাশ সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্চুয়ারীতে ছিলো। আজ দুই দফা জানাজা শেষে তাকে চিরনিদ্রায় সমাহিত করা হয়।

Sharing is caring!

Loading...
Open