সাংবাদিক জহিরুলের উপর সন্ত্রাসী হামলায় বিভাগীয় অনলাইন প্রেস ক্লাবের নিন্দা


সুরমা টাইমস ডেস্ক ::সিলেট বিভাগীয় অনলাইন প্রেস ক্লাবের সিনিয়র সদস্য সাপ্তাহিক হলি সিলেট.কম এর নির্বাহী সম্পাদক এস এম জহিরুল ইসলাম এর উপর সন্ত্রাসী হামলার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন সিলেট বিভাগীয় অনলাইন প্রেস ক্লাবের সভাপতি শেখ মোঃ লুৎফুর রহমান,প্রচার সম্পাদক রমজান আহমদ,কোষাধক্য বাপ্পী চৌধুরী,আহমেদ শাকিল,মহিলা সম্পাদক তাহেরা বেগম,সদস্য শাহরিয়ার চৌধুরী সাব্বির,সাইফুল ইসলাম,ইমরান,সেবুল প্রমুখ। গতকাল জহিরুল কে এম এ জি ওসমানী হাসপাতালে দেখতে গিয়ে এমন অবস্হা দেখে প্রেস ক্লাবের সভাপতি সহ সকল সদস্যরা বলেন জহিরুল ইসলাম এর উপর সন্ত্রাসীরা হামলা করেছে থাকে প্রানে মারার উদ্দ্যেশে আমরা এই জগন্যতম কাজের নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই এবং এরই সাথে যে সন্ত্রাসীরা এরকম জগন্য কাজ করেছে তাদেরকে পুলিশ গ্রেফতার করে আইনের মাধ্যমে বিচার হওয়ার জন্য জুর দাবী জানান প্রেস ক্লাবের নেতৃবৃন্দ। নতুবা প্রেস ক্লাবের নেতৃবৃন্দ রাস্তায় নামতে বাধ্য হবে।

উল্লেখ্য. শ্রীমঙ্গল উপজেলার লালবাগ এলাকার মাদক ব্যবসায়ী, ও মাদক সেবনকারী ডাকাত রোকন বাহীনির হামলায়, হলিসিলেটের নির্বাহী সম্পাদক এস, এম, জহুরুল ইসলাম গুরুত্বর আহত।১৬ জুলাই সোমবার সকাল ৮ টার সময় এ ঘটনা ঘটে।সোমবার সকাল ৮ টায় তার ভাগিনাকে স্কলার্স হোম স্কুলে পৌছে দিয়ে বাসায় ফেরার পথে ঈদগাহ সাপ্লাই রোড, পয়েন্টের গুল চত্তরে আসা মাত্র, আগে থেকে ওৎ পেতে থাকা সি এন জি থেকে নেমে এক দল সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্র নিয়ে প্রাণে হত্যার উদ্যেশ্যে সাপ্তাহিক হলি সিলেট পত্রিকার নির্বাহী সম্পাদক এস, এম, জহুরুল ইসলামের উপর অতর্কিত হামলা চালায়।

সন্ত্রাসীদের এলোপাতাড়ি হামলা থেকে নিজেকে রক্ষার জন্য তিনি চিৎকার করিলে কিছু পথচারি লোকজন দৌড়াইয়া আসিলে এ সময়

সন্ত্রাসীরা সি এন জি যোগে পালিয়ে যায়। তখন জহুরুল রক্তাক্ত জখম অবস্তায় অজ্ঞান হয়ে রোডের পাশে মুমৃর্ষ অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে পথচারি লোকজন তাকে ওসমানি হাসপাতালের জরুরী বিভাগে নিয়ে যায়।এবং কর্তব্যরত ডাক্তার তার চিকিৎসা প্রদান করেন ।

সাংবাদিক জহুরুল ইসলাম জানান, ডাকাত রোকনের বাহীনির বিরুদ্ধে স্থানীয় পত্রিকায় একাধিক নিউজ করায়
সন্ত্রাস রোকন বাহীনি এ হামলা করেছে বলে তিনি জানান।
এ ঘটনার পৃর্বে এস, এম, জহুরুল ইসলাম কে একাধিক বার মোবাইল ফোনে রোকন প্রানে মারার হুমকিও দেয় এবং সাংবাদিক জহুরুল ইসলাম তার নিরাপত্তার জন্য ঘটনার আগের দিন সিলেট কোতয়ালী থানায় একটি সাধারণ ডায়রী করেন।ডায়রী নং১০১০-১৫/৭/২০১৮।

সন্ত্রাস রোকন তার বাহীনির নিয়ে পৃর্ব পরিকল্পনা
অনুযায়ী সাংবাদিক জহিরুল ইসলামের উপর এ হামলায় চালায়।

ডাকাত রোকন শ্রীমঙ্গল উপজেলার লালভাগ,গ্রামের মৃত লেবু মিয়ার ছেলে। একাধিক চোরি ডাকাতি ও মাদকের মামলার আসামী। সে আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সর্দার তার বিরুদ্ধে গাজাঁ, ইয়াবা, ব্যবসার ও সেবনের একাধিক অভিযোগ রয়েছে। ডাকাত রোকন চত্রুের ভয়ে এলাকার মানুষ দিশাহারা।তার বিরুদ্ধে কেউ কথা বলার সাহস রাখেনা খোজ নিয়ে জানা যায় রোকন
বেশ কয়েকটি ডাকাতি মামলার অভিযোগে জেল জরিমানাসহ থানায় ও কোর্টে রয়েছে একাধিক মামলা।

Sharing is caring!

Loading...
Open