চাঁদা না দেয়ায় শাবিতে ওয়াইফাই সংযোগের কাজে ছাত্রলীগের বাঁধা

শাবি প্রতিনিধি :: চাঁদা না দেওয়ায় শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলগুলোর ওয়াইফাই সংযোগ ও উন্নয়নের কাজে বাঁধা দিয়েছে শাখা ছাত্রলীগ।

জানা যায়, ঈদ ও গ্রীষ্মকালীন ছুটির সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলগুলোতে নতুন করে ওয়াইফাই সংযোগ ও উন্নয়নের কাজ শুরু করে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান হামিদা ট্রেডার্স। ছুটি শেষে হল খোলার পর পুনরায় প্রতিষ্ঠানটি কাজ শুরু করতে গেলে তাদের কাছে চাঁদা দাবি করে ছাত্রলীগের কতিপয় নেতৃবৃন্দ এবং চাঁদা না দিতে পারলে কাজ বন্ধ রাখার কথা বলেন তারা। এদিকে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানটি চাঁদা দাবির ঘটনা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে জানিয়ে বুধবার থেকে সবগুলো আবাসিক হলে কাজ বন্ধ করে দেয়।

এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার এন্ড ইনফরমেশন সেন্টারের পরিচালক অধ্যাপক ড. জহিরুল ইসলাম বলেন, রাজনীতির সাথে সংশ্লিষ্ট কিছু ছাত্র চাঁদার দাবিতে ওয়াইফাইয়ের কাজ বর্তমানে বন্ধ রয়েছে।

শাহপরান হলের প্রভোস্ট শাহেদুল হোসাইন জানান, ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মো. রুহুল আমীন ও সহ সভাপতি তারিকুল ইসলাম চাঁদা দাবি করেছে ও কাজ বন্ধ রাখার হুমকিও দিয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ আমাকে জানায়।

উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ বলেন, ছাত্রলীগের নেতাদের চাঁদা না দেয়ায় ওয়াইফায়ের কাজ বন্ধ আছে বলে আমি শুনেছি। আমি তাদের সাথে কথা বলেছি। ছাত্রলীগের ছেলেরা আর বাঁধা দিবে না বলে আমাকে জানিয়েছে।

এদিকে এ অভিযোগ সম্পূর্ণ অস্বীকার করে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রুহুল আমীন বলেন, ‘আমরা কখনোই কাউকে কাজ বন্ধ রাখার কোন রকম হুমকি দেইনি।’

ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি তারিকুল ইসলাম বলেন, ‘আমার উপর আনীত অভিযোগটি সম্পূর্ণ মিথ্যা। আমরাই দীর্ঘদিন ধরে হল প্রশাসনের কাছে নতুন ওয়াইফাই লাইন স্থাপনের দাবি জানিয়ে আসছি। অতএব এ কাজে বাঁধা দেয়ার প্রশ্নই আসেনা।’

Sharing is caring!

Loading...
Open