দক্ষিণ সুরমায় ভাঙচুর হলো দোকান, মার খেলেন আ.লীগ সভাপতি,

নিজস্ব প্রতিবেদক :: দক্ষিণ সুরমার বাবনা পয়েন্টে একটি দোকান খুলতে বাধা দেয়াকে কেন্দ্র করে মারামারির ঘটনা ঘটেছে। মার খেয়ে মাথা ফেটেছে বরইকান্দি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি গৌছ মিয়ার। পরে তার অনুসারীরা হামলা চালিয়ে কয়েকটি দোকান ভাঙচুর করেছেন। সোমবার ইফতারের আগে এই ঘটনা ঘটেছে।
মারামারির ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করে দক্ষিণ সুরমা থানার ওসি খায়রুল ফজল বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ রয়েছে।
স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্র জানায়, দক্ষিণ সুরমার বাবনা পয়েন্টে বরইকান্দি ৭নং রোডের আব্বাস, মুমিনদের একটি দোকান রয়েছে। সোমবার আসরের নামাজের পরে বরইকান্দি ইউপি আওয়ামী লীগ সভাপতি গৌছ মিয়া ওই দোকান খুলতে আব্বাস ও মুমিনদের নিষেধ করেন। ওই সময় আব্বাস ও মুমিনদের পক্ষে কথা বলেন বরইকান্দি ইউপি চেয়ারম্যান হাবিব হোসেনের ভাতিজা সুহেল রানা।
এ নিয়ে উভয়পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটি শুরু হয়। একপর্যায়ে উভয়পক্ষ মারামারিতে জড়িয়ে পড়ে। মার খেয়ে মাথা ফেটে যায় গৌছ মিয়ার। তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
এদিকে, ওই মারামারির ঘটনার কিছু সময় পর গৌছ মিয়ার অনুসারী ১৫-২০ জন যুবক বাবনা পয়েন্টে এসে হাবিব হোসেনের মালিকানাধীন ‘হাবিব হোসেন স্টোর’সহ কয়েকটি দোকানে ভাঙচুর চালায়। বর্তমানে পরিস্থিতি উত্তপ্ত রয়েছে।
ঠিক কি কারণে দোকান খুলতে নিষেধ করেন গৌছ মিয়া, তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।
তবে সূত্র জানিয়েছে, কিছুদিন আগে বরইকান্দিতে আওয়ামী লীগের দুটি গ্রুপের সংঘর্ষে দুজন নিহত হওয়ার ঘটনায় গৌছ মিয়া একটি পক্ষ এবং আব্বাস, মুমিনরা আরেকটি পক্ষ।

Sharing is caring!

Loading...
Open