কালীগঞ্জে ‘গোলাগুলি’তে নিহত মাদক মামলার আসামি


ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃঃঝিনাইদহের কালীগঞ্জে পুলিশের সঙ্গে ‘গোলাগুলি’তে শামীম নামের এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে।
বৃহস্পতিবার (২৪ মে) রাত আনুমানিক সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার ওয়াপদা নামক স্থানে ‘গোলাগুলি’র এ ঘটনা ঘটে।

উপজেলার আড়পাড়া গ্রামের বাসিন্দা নিহত শামীম পুলিশের তালিকাভুক্ত মাদক ব্যবসায়ী। তার নামে থানায় ৯ টি মামলা রয়েছে।

এ নিয়ে গত চারদিনে কালীগঞ্জে দ্বিতীয় মাদক ব্যবসায়ী নিহত হলো। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল, ৩ রাউন্ড গুলি, ৪৮০ পিস ইয়াবা ও ১৭ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করেছে। কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান খান জানান,

কালীগঞ্জ পৌর এলাকার ওয়াপদা রোডের একটি পরিত্যক্ত ভবনের মধ্যে মাদক বিক্রির সংবাদ পেয়ে পুলিশ অভিযানে যায়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ৫/৬ মাদক ব্যবসায়ী গুলি ছোড়ে। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়। উভয়পক্ষের গুলি বিনিময়ের পর মাদক ব্যবসায়ীরা পালিয়ে গেলেও ঘটনাস্থল থেকে একজনকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত ডাক্তার মাহফুজুল আলম সোহাগ তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

পরে নিহতের নাম শামীম বলে জানতে পারে পুলিশ।

গোলাগুলির সময় কালীগঞ্জ থানার এসআই অমিত দাস, এএসআই শামীম হোসেন,

পুলিশ কনস্টেবল নাজিম উদ্দীন, রতন আহত হয়েছেন বলে পুলিশের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে। ওসি আরও জানান, শামীম পুলিশের তালিকাভুক্ত শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী। তার নামে থানায় মাদকদ্রব্য আইনে ৯টি মামলা রয়েছে।

গত ২০ মে দিবাগত রাত ২টার দিকে র‌্যাবের সঙ্গে ‘গোলাগুলি’তে কালীগঞ্জ উপজেলার নরেন্দপুর গ্রামের মোহাম্মদ আলীর ছেলে মাদক ব্যবসায়ী সব্দুল ইসলাম ওরফে সব্দুল মণ্ডল নিহত হয়। এ ঘটনার চারদিন পর নিহত হলো মাদক ব্যবসায়ী শামীম।

Sharing is caring!

Loading...
Open