সিলেটে সেহরী ও ইফতারের সময়সূচি……..

নিজস্ব প্রতিবেদক :: আরবী বারো চাঁদের মধ্যে রমজানুল মুবারকের মাহাত্ব ও গুরুত্ব অতীব তাৎপর্যপূর্ণ। মানব জীবনকে পূত-পবিত্র, সুন্দর এবং পারোলৌকিক মুক্তি, সুখ-শান্তির নিশ্চয়তা দেয় এই রমজানুল মুবারক।

পারস্পরিক সহমর্মিতা, সৌহার্দবোধ এবং আত্মশুদ্ধির মহান শিক্ষা ও অনুশীলনে রমজানুল মুবারক মাসের ভূমিকা অনস্বীকার্য।

সত্য-অসত্য, পাপ-পুণ্য এবং ভালো-মন্দের যথার্থ উপলব্ধির মাধ্যমে মানব জীবনকে মহিয়ান ও সফল করে গড়ে তোলার লক্ষ্যেই রমজানুল মুবারকের শুভ আগমন।

আমাদের জীবনের সকল ক্ষেত্রে রমজানের সিয়াম সাধনা করে পবিত্রতম ও ঐশ্বর্যমণ্ডিত।

এক কথায় মাহে রমজান ত্যাগ ও সংযমের মহান শিক্ষা দিয়ে আমাদের রহমত ও বরকতের পাল্লা ভারি করে। অন্যদিকে সমাজ জীবনে সাম্য প্রতিষ্ঠার রমজানের মরতবা ও ফজিলত অপরিসীম, ধনী-গরীবের মধ্যকার ভেদাভেদ ভুলে আমরা এই মহান মাসে পরস্পর একাত্ম হই। আজ পহেলা রমজান। ১৮ই মে শুক্রবার। সিলেটে সেহরীর শেষ সময় ৩ টা ৩৯ মিনিটে। ফজর ৩ টা ৪৬ মিনিটে। ইফতারের শেষ সময় ৬ টা ৩৫ মিনিটে।

রোজা বা সিয়াম ইসলাম ধর্মের পাঁচটি মূল ভিত্তির তৃতীয়। সূর্য উদয় থেকে অস্ত পর্যন্ত সকল প্রকার খওয়া বা পান করা এবং সেই সাথে যাবতীয় ভোগ-বিলাস থেকেও বিরত থাকার নাম রোযা। ইসলামী বিধান অনুসারে, প্রতিটি সবল মুসলমানের জন্য রমজান মাসের প্রতি দিন রোজা রাখা ফরজ। জেনে নিন রোজা রাখার নিয়ত ও ইফতারের দোয়া।

রোজার নিয়্যত :-
নাওয়াইতু আন আছুমা গদাম মিন শাহরি রমাদ্বানাল মুবারকি ফারদ্বল্লাকা ইয়া আল্লাহু ফাতাক্বব্বাল মিন্নী ইন্নাকা আংতাস সামীউল আলীম।

অর্থ:- আয় আল্লাহ পাক! আপনার সন্তুষ্টির জন্য আগামীকালের রমাদ্বান শরীফ-এর ফরয রোযা রাখার নিয়ত করছি। আমার তরফ থেকে আপনি তা কবুল করুন। নিশ্চয়ই আপনি সর্বশ্রোতা , সর্বজ্ঞাত।

ইফতারের দোয়া :-
আল্লাহুম্মা সুমতু লাকা, ওয়া তাওআক্কালতু আ‘লা রিঝক্বিকা, ওয়া আফতারতু বিরাহমাতিকা ইয়া আরহামার রহিমীন।

অর্থ:- আয় আল্লাহ পাক! আমি আপনারই সন্তুষ্টির জন্য রোযা রেখেছি এবং আপনারই দেয়া রিযিক্ব দ্বারা ইফতার করছি।

বিঃ দ্রঃ সকলকেই সাহরীর ও ইফতার-এর সময়ের ব্যাপারে সচেতন থাকতে হবে। যেনো কোনো অবস্থাতেই সময় কম বা বেশি না হয়। আর তাই অনেক কামেল ব্যক্তিবর্গ মনে করেন সেজন্য সাবধানতার নিমিত্তে সাহরী-এর সময় থেকে ৫ মিনিট কমিয়ে ও ইফতারী-এর সময় থেকে ১/২ মিনিট বাড়িয়ে সাহরী ও ইফতার করা উচিত।
একটি হাদিস শরীফে আছে ইফতার ও সাহরীর ঘোষণার জন্য সাইরেন বাজানো হারাম। তবে ইফতারীর জন্য আযান দেয়া আর সাহরীর জন্য মুখে বা মাইকে ঘোষণা দেয়াই সর্বোত্তম।
—–{ সেহরীর শেষ সময় ৩ টা ৩৯ মিনিট – ইফতারের শেষ সময় ৬ টা ৩৫ মিনিট }—–

Sharing is caring!

Loading...
Open