সুনামগঞ্জ জেলা কারাগারের এক কারারক্ষীর আত্মহত্যা

সুনামগঞ্জ সংবাদদাতা ::

সুনামগঞ্জ জেলা কারাগারে এক কারারক্ষী ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে সদর মডেল থানা পুলিশ। তার নাম ধৈর্য্য দাস(২৮)ওরফে আমজাদ হোসেন। তিনি সিলেটের জৈন্তাপুর উপজেলার ঘিলাতুলী গ্রামের দিপেন্দ্র দাসের ছেলে।

শুক্রবার (১১মে) বিকেল ৪টায় শহরের হালুয়ারগাওঁ এলাকায় কারাগারের ৪তলা কোয়াটারের নীচতলায় তার কক্ষে সিলিং ফ্যানের সাথে রশি দিয়ে সে আত্মহত্যা করে। খবর পেয়ে সদর মডেল থানা পুলিশ ও গণমাধ্যমকর্মীরা ঘটনাস্থলে তার কক্ষে গিয়ে ঝুলন্ত অবস্থায় লাশ দেখতে পায় । পরে পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে। তবে তাৎক্ষনিক তার আত্মহত্যার কারণ জানা যায়নি। তবে কারারক্ষী ধৈয্য দাস ওরফে আমজাদ হোসেন দীর্ঘ ১১ মাস ধরে সুনামগঞ্জ কারাগারে কারারক্ষী হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায় সুনামগঞ্জ কারাগারের এক মহিলা কারারক্ষী সাজেদা ইয়াসমিনের সাথে একবছর ধরে প্রেমের সর্ম্পক তৈরী হয়। এরই সুবাদে গত একমাস পূর্বে নোটারি পাবলিকের মাধ্যমে ধৈর্য্য দাস ধর্মান্তরিত হয়ে আমজাদ হোসেন নাম দিয়ে সাজেদা ইয়াসমিনকে বিয়ে করেন এবং কারাাগরের ৪ তলা ভবণের নীচ তলায় ন্ত্রীকে নিয়ে বসবাস করে আসছিলেন।

এ ব্যাপারে জেল সুপার মো. আবুল কালাম আজাদ আত্মহত্যার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তবে আত্মহত্যার কারণ তিনি কিছুই জানাতে পারেননি।
এ ব্যাপারে সদর থানার এস আই ও তদন্তকারী কর্মকর্তা মো. জালাল উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান,স্থানীয়রা বলেছেন আমজাদ হোসেন নিজে নিজেই আত্মহত্যা করেছেন। তবে আত্মহত্যার সঠিক মোটিভ ময়না তদন্তের পর জানা যাবে।

Sharing is caring!

Loading...
Open