সুনামগঞ্জ জেলার জগন্নাথপুর থেকে আন্তঃজেলা ডাকাত দলের ০৫ জন পেশাদার ডাকাত সদস্যকে ০২ টি পাইপ গান ও দেশীয় অস্ত্রসহ আটক করেছে র‌্যাব-৯


গত কিছু দিন যাবত সুনামগঞ্জ জেলার বিভিন্ন এলাকায় সংঘবদ্ধ আন্তঃজেলা ডাকাত দলসমূহ বিভিন্ন বাড়ীতে ডাকাতি করে সর্বস্ব লুট করে নিয়ে যাচ্ছিল। জনগনের মাঝে আস্থা ও নিরাপত্তা ফিরিয়ে আনার জন্য র‌্যাব-৯, দায়িত্বপূর্ণ এলাকায় তাদের আভিযানিক ও গোয়েন্দা তৎপরতা বৃদ্ধি করে।

এরই সূত্র ধরে ০২ মে ২০১৮ ইং তারিখ রাত্রি ১১.৫০ ঘটিকায় র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন-৯ এর সিপিসি-৩, সুনামগঞ্জ ক্যাম্পের একটি বিশেষ আভিযানিক দল গোপন সংবাদ পায় যে, পেশাদার সংঘবদ্ধ একটি ডাকাত দল অস্ত্রসহ সুনামগঞ্জ জেলার জগন্নাথপুর থানাধীন বাউরকাপন সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে জগন্নাথপুর-বিশ^নাথ রোডের উপর ডাকাতির লক্ষ্যে প্রস্তুতি নিচ্ছে। এ সংবাদের ভিত্তিতে লেঃ কমান্ডার ফয়সল আহমদ এর নেতৃত্বে র‌্যাবের একটি চৈাকষ দল অভিযান পরিচালনা করে।

র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে ডাকাত দলটি পালানোর চেষ্টাকালে ০৫ জন ডাকাতকে হাতেনাতে গ্রেফতার করা হয়। একই সাথে ডাকাতি কাজে ব্যবহারের জন্য তাদের কাছে থাকা দেশীয় তৈরি পাইপ গান-০২টি, ছুরি-০২টি ও চাপাতি-০১টি উদ্ধার করা হয়। আটককৃত ডাকাতদের নাম ও ঠিকানা যথাক্রমেঃ ১। মোঃ নুরুল হক (২৯), পিতা-নুরল ইসলাম, গ্রাম-সিরামিসি, থানা-জগন্নাথপুর, জেলা-সুনামগঞ্জ, ২। নুনু মিয়া (২২), পিতা-মোঃ আঃ বারেক, গ্রাম-সিরামিসি, থানা-জগন্নাথপুর, জেলা-সুনামগঞ্জ, ৩। আলী সামাদ(২২), পিতা-আশক আলী, গ্রাম-সিরামিসি, থানা-জগন্নাথপুর, জেলা-সুনামগঞ্জ, ৪। মোঃ জুয়েল মিয়া (২১), পিতা মৃত-আব্দু মিয়া, গ্রাম-সিরামিসি, থানা-জগন্নাথপুর, জেলা-সুনামগঞ্জ, ৫। মোঃ শাহাদত হোসেন (২০), পিতা মৃত-আফছোর আলী, গ্রাম-সিরামিসি, থানা-জগন্নাথপুর, জেলা-সুনামগঞ্জ। গ্রেফতারকৃত অভিযুক্তরা দীর্ঘদিন যাবত আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও লোক চক্ষুর অন্তরালে সুনামগঞ্জ জেলার বিভিন্ন থানা এলাকায় ডাকাতির একটি বড় চক্র গড়ে তোলে। তাদের এহেন কর্মকান্ডে এলাকাবাসীর মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করে আসছিল। উদ্ধারকৃত অস্ত্র ও অন্যান্য আলামতসহ গ্রেফতারকৃত আসামীদেরকে সুনামগঞ্জ জেলার জগন্নাথপুর থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।বিজ্ঞপ্তি

Sharing is caring!

Loading...
Open