সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপির বিশাল মানববন্ধন

সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপি নেতৃবৃন্দ বলেছেন- মানসিকভাবে বিপর্যস্ত করতেই একটি ষড়যন্ত্রমুলক ভুয়া রাজনৈতিক মামলায় অবৈধ সাজা দিয়ে গণতন্ত্রের ফিনিক্স পাখি দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে আটকে রেখেছে সরকার। একটি নির্জন কারাগারে আটকে রাখার ফলে তিনবারের সাবেক সফল প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। কিন্তু অবৈধ ফ্যাসিবাদী সরকার তাঁকে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা থেকেও বিরত রেখেছে। কথিত দুর্নীতি তো দুরের কথা, কোন অপরাধ নয়, গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার আন্দোলনে নেতৃত্ব দেয়ায় গণতন্ত্রের মা দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে আটকে রাখা বাকশালী সরকারের রাজনৈতিক প্রতিহিংসার নগ্ন বহিঃপ্রকাশ। বিচারের নামে অবৈধ বাকশালী সরকার বেগম খালেদা জিয়ার প্রতি যে অবিচার করেছে এর জন্য তাদেরকে অবশ্যই চড়া মুল্য দিতে হবে। বেগম খালেদা জিয়ার জামিন ও মুক্তি নিয়ে অবৈধ সরকারে টালাবাহানা প্রমাণ করে বিচার বিভাগ তাদের রাজনৈতিক আদেশ পালনে আজ্ঞাবহ হয়ে কাজ করছে। বিএনপির শান্তিপূর্ণ আন্দোলনকে দুর্বলতা মনে করেই সরকার গণতন্ত্রের মা’এর মুক্তি নিয়ে ষড়যন্ত্র করছে। সরকারকে ভুলে গেলে চলবেনা জনতার ধৈর্য্যরে বাধ ভেঙ্গে গেলে পরিনতি হবে ভয়াবহ। অবিলম্বেব দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে নিঃশর্ত মুক্তি দিন এবং তাঁর প্রয়োজনীয় সুচিকিৎসা নিশ্চিত করুন।

বুধবার দুপুরে বিএনপির কেন্দ্রীয় কর্মসুচীর অংশ হিসেবে ষড়যন্ত্রমুলক মামলার ফরমায়েসী রায়ে কারান্তরীণ বিএনপি চেয়ারপার্সন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবীতে নগরীর চৌহাট্রাস্থ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত বিশাল মানববন্ধনে বক্তারা উপরোক্ত কথা বলেন। সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপির উদ্যোগে আয়োজিত বিশাল মানববন্ধনে জেলা ও মহানগর বিএনপি ছাড়াও যুবদল, ছাত্রদল, স্বেচ্ছাসেবক দল, শ্রমিক দল, মহিলা দল, জাসাস ও ওলামা দল সহ অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের সহ¯্রাধিক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।
সিলেট মহানগর বিএনপির সভাপতি নাসিম হোসাইনের সভাপতিত্বে ও জেলা সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন- বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও সিলেট সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক বদরুজ্জামান সেলিম, জেলা সহ-সভাপতি কামরুল হুদা জায়গীরদার, মহানগর সহ-সভাপতি হুমায়ুন কবির শাহীন, সহ-সভাপতি ও মহানগর মুক্তিযোদ্ধা দলের আহ্বায়ক সালেহ আহমদ খসরু, মহানগর সহ-সভাপতি সিসিক প্যানেল মেয়র রেজাউল হাসান কয়েস লোদী, জেলা সহ-সভাপতি শাহজামাল নুরুল হুদা, সহ-সভাপতি একেএম তারেক কালাম, মহানগর সহ-সভাপতি আমির হোসেন, জেলা সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রব চৌধুরী ফয়সল, মহানগর সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আজমল বখত্ চৌধুরী সাদেক, মহানগর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন আহমদ মাসুক, জেলা যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইশতিয়াক আহমদ সিদ্দিকী ও মো: ময়নুল হক, মহানগর সাংগঠনিক সম্পাদক ও সিটি কাউন্সিলার সৈয়দ তৌফিকুল হাদী, জেলা সাংগঠনিক আব্দুল আহাদ খান জামাল, মহানগর সাংগঠনিক মাহবুব চৌধুরী, জেলা প্রচার সম্পাদক নিজাম উদ্দিন জায়গীরদার ও মহানগর প্রচার সম্পাদক শামীম মজুমদার প্রমূখ। – বিজ্ঞপ্তি

Sharing is caring!

Loading...
Open