নবীগঞ্জে সংখ্যালঘু বাড়ীতে হামলার ঘটনার প্রধান আসামী ইসলাম উদ্দিন ও তার সহযোগীরা গ্রেপ্তার এলাকায় স্বস্থি

উত্তম কুমার পাল হিমেল,নবীগঞ্জ(হবিগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ নবীগঞ্জ উপজেলার বড় ভাকৈর পশ্চিম ইউনিয়নের আমড়াখাইর গ্রামের মৃত রবীন্দ্র দাশের পুত্র রনি দাশের বাড়ীসহ সংখ্যালঘু আরো ১০/ ১৫ টি বাড়ীতে পুর্ব শক্রুতার জের ধরে একই গ্রামের মৃত মজর উল্লার পুত্র ইসলাম উদ্দিন ও তার সহযোগীরা হামলা ও ভাংচুরের কারনে রনি দাশ বাদী হয়ে ২৮ জনসহ গং আসামী করে মামলা দায়ের করে। গতকাল মঙ্গলবার বিকালে নবীগঞ্জ থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে মামলার প্রধান আসামী আমড়াখাইড় গ্রামের মৃত মজর উল্লার পুত্র ইসলাম উদ্দিনও একই গ্রামের মৃহ আব্দুল আজীজের পুত্র শাইকুল মিয়াকে গ্রেপ্তার করে । গ্রেপ্তারকৃত ইসলাম উদ্দিনের বিরুদ্ধে এলাকায় ভুমি দখলসহ বিভিন্ন মামলা ও অভিযোগ রয়েছে। এভাাবে আমড়াখাইর গ্রামের মৃত রবীন্দ্র দাশের পুত্র রনি দাশের বাড়ীসহ সংখ্যালঘুদের বাড়ীতে হামলার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও দোষীদের বিরুদ্ধে কটোর আইনী ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য আহবান জানিয়েয়েছেণ নবীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট আলমগীর চৌধুরী,নবীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ইমদাদুর রহমান মুকুল,সাধারন সম্পাদক সাইফুল জাহান চৌধুরী, নবীগঞ্জ যুবলীগের আহবায়ক ফজলুল হক চৌধুরী সেলিম,যুগ্ম আহবায়ক রাব্বি আহমদ মাক্কু,নবীগঞ্জ উপজেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি নারায়ন রায়,সাধারন সম্পাদক উত্তম কুমার পাল হিমেল,নবীগঞ্জ উপজেলা পুজা উদযাপন পরিষদের সাধারন সম্পাদক ও পৌর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক নির্মলেন্দু দাশ রানা,বড় ভাকৈর পশ্চিম ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি সমর চন্দ্র দাশ,সাধারন সম্পাদক গৌতম কুমার দাশ,ইউনিয়ন হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি ভুপেশ চন্দ্র দাশ,সাধারন সম্পাদক দেবব্রত দাশ, ইউনিয়ন পুজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি নারায়ন চন্দ্র দাশ,সাধারন সম্পাদক বিকুল চন্দ্র দাশসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

Sharing is caring!

Loading...
Open