“বিয়ানীবাজারে আহত অটোরিক্সা চালক সাকের’র মাথায় সফল অস্ত্রোপচার”

বিয়ানীবাজার প্রতিনিধি ::        বিয়ানীবাজারের ঐতিহ্যবাহী পিএইচজি হাই স্কুল মাঠে বৃহস্পতিবার মাহা-বিয়ানীবাজার উপজেলা ক্রীড়া সংস্থা কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা দেখতে গিয়ে মাঠের নিকটবর্তী পঞ্চখন্ড গোলাবিয়া পাবলিক লাইব্রেরীর ছাদ থেকে পড়ে গুরুতর আহত অটোরিক্সা চালক সাকেরের মাথায় সফল অস্ত্রোপরচার সম্পন্ন হয়েছে। রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে আজ রবিবার সকাল সাড়ে ১০টায় শুরু হওয়া অস্ত্রোপচার চলে টানা ৪ ঘন্টা।

ভারতের বিখ্যাত ভেলোর হাসপাতালের নিউরো সার্জন অধ্যাপক ডা. কৃষ্ঞপ্রভুর তত্ত্বাবধানে চলে এই অস্ত্রোপচার। অস্ত্রোপচার শেষে তাকে হাসপাতালের আইসিইউতে নিবীড় পর্যবেক্ষণে রয়েছে। বর্তমানে তাঁর অবস্থা স্থিতিশীল। এর আগে গতকাল শনিবার দুপুরে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল থেকে আহত সাকেরকে একটি বিশেষায়িত হেলিকাপ্টারে করে রাজধানী ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে একটি মেডিকেল বোর্ড গঠন করে শুরু হয় তার চিকিৎসা। হাসপাতালে তার চিকিৎসার খোঁজখবর নিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদসহ অনেকে। এছাড়াও তার চিকিৎসার যাবতীয় ব্যয়ভার বহন করছেন, মাহা-বিয়ানীবাজার উপজেলা ক্রীড়া সংস্থা কাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টের পৃষ্টপোষক ও বাফুফে সদস্য, বিশিষ্ট শিল্পপতি মাহি উদ্দিন আহমদ সেলিম।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার বিয়ানীবাজার পৌরশহরের পিএইচজি হাই স্কুল মাঠে মাহা-বিয়ানীবাজার উপজেলা ক্রীড়া সংস্থা কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা শেষে মাঠের নিকটবর্তী পঞ্চখন্ড গোলাবিয়া পাবলিক লাইব্রেরীর দু’তলার ছাদ থেকে পড়ে গুরুতর আহত হন অটোরিক্সা চালক সাকের আহমদ (২৫)। মুমূর্ষু অবস্থা তাকে প্রথমে বিয়ানীবাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। আহত সাকের উপজেলার মাথিউরা উত্তরপাড়ের তেরাই আলীর একমাত্র ছেলে। তার রোজগারে চলে তাদের পরিবার। অপরদিকে এঘটনার পর থেকে অভিযোগ উঠে সাকেরকে ছাদ থেকে হামলা করে ফেলা দেয়া হয়েছে। তবে কে বা কারা তার উপর হামলা করেছে, তাঁর কোন তথ্য প্রমাণ পাওয়া যায় নি।

Sharing is caring!

Loading...
Open